অনার্স ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপ 2022

অনার্স ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপ 2022 | অনার্স ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপ ২০২২ | অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফরম ফিলাপ ২০২২ | অনার্স ১ম বর্ষ ফরম ফিলাপ ২০২২ | অনার্স ফরম পূরণ – অনার্স ১ম বর্ষের ফরম পূরণ ২০২২ – honours 1st year form fillup 2022

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণের নতুন বিজ্ঞপ্তি ২০২২ প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত সংশোধিত বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ি ফরম ফিলাপ চলবে ০৯/০৫/২০২২ তারিখ পর্যন্ত। চলুন অনার্স ১ম বর্ষের ফরম পূরণ সম্বন্ধে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক :

অনার্স ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপ ২০২২

সুপ্রিয় বন্ধুরা! আপনারা এডু মাসাইলের এই পোষ্ট থেকে জানতে পারবেন, ২০২১ সালের অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষায় কারা কারা আবেদন করতে পারবে, কিভাবে অনলাইনে আবেদন করবে ও ফরম ফিলাপের তারিখ সহ বিস্তারিত তথ্যবলি। চলুন শুরু করি :

আরও দেখুন : অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার রুটিন ২০২২ পিডিএফ সহ

ফরম পূরণ শুরু (বর্ধিত)২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ হতে
ফরম পূরণ চলবে (বর্ধিত)১০ অক্টোবর ২০২২ পর্যন্ত
ডাটা এন্ট্রির সময় (কলেজ) ১১ অক্টোবর ২০২২ পর্যন্ত

অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণ করার যোগ্যতা ২০২২

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের নিয়মিত, ২০১৯-২০, ২০১৮-২০১৯, ২০১৭-২০১৮, শিক্ষাবর্ষের অনিয়মিত ও গ্রেড উন্নয়ন এবং ২০১৫-২০১৬ (১ম বর্ষ Promoted), ২০১৪-২০১৫ (২য় বর্ষ Promoted) এবং ২০১৩-২০১৪ (৩য় বর্ষ Promoted) শিক্ষাবর্ষের শুধুমাত্র Promoted শিক্ষার্থীগণ F গ্রেড প্রাপ্ত কোর্সে ২০২০ সালের অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। নিম্নে ফরম ফিলাপের যোগ্যতা সহ ফরমপুরণের বিস্তারিত তথ্যবলি দেখুন : নিয়মিত পরীক্ষার্থীদের জন্য  :

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে রেজিস্ট্রেশনকৃত অনার্স কোর্সের সকল ছাত্র-ছাত্রী (যারা রেগুলেশন অনুযায়ী কোর্স সম্পন্ন করেছে) ২০২০ সালের অনার্স ১ম বর্ষের নিয়মিত পরীক্ষার্থী হিসেবে ২০১৩-২০১৪ শিক্ষাবর্ষের সিলেবাস ও সংশােধিত রেগুলেশন অনুযায়ী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে।

অনিয়মিত পরীক্ষার্থীদের জন্য :

২০১৬-২০১৭, ২০১৭-২০১৮ ও ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষের যে সকল শিক্ষার্থী অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে Not Promoted হয়েছে অথবা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেনি, ঐ সকল শিক্ষার্থী অনিয়মিত পরীক্ষার্থী হিসেবে ২০২০ সালের অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযােগ পাবে।

Not Promoted শিক্ষার্থীকে পূর্ববর্তী বছরের পাসকৃত কোর্সের পরীক্ষা দিতে হবে না। তবে যারা ২০১৯ সালের অনার্স ১ম বর্ষে প্রথম বারের মত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে C বা  D  গ্রেড পেয়েছে শুধুমাত্র তারাই ২০২০ সালের পরীক্ষায় উচ্চতর গ্রেডে উন্নীত করার জন্য পরীক্ষা দেয়ার সুযােগ পাবে এবং  F’ গ্রেড প্রাপ্ত সকল কোর্সে পরীক্ষা দিতে হবে।

গ্রেড উন্নয়ন পরীক্ষার্থীদের জন্য  :

২০১৯ সালের অনার্স ১ম বর্ষে যে সকল শিক্ষার্থী নিয়মিত ও অনিয়মিত পরীক্ষার্থী হিসেবে প্রথম বারের মত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২য় বর্ষে প্রমােশন পেয়েছে, ঐ সকল শিক্ষার্থীরা শুধুমাত্র C এবং D গ্রেড প্রাপ্ত কোর্স/কোর্সসমূহে গ্রেড উন্নয়ন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে।

যে সকল শিক্ষার্থী ২০১৩-২০১৪, ২০১৪-২০১৫, ২০১৫-২০১৬, ২০১৬-২০১৭, ২০১৭-২০১৮ ও ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২য় বর্ষে প্রমােশন পেয়েছে কিন্তু এক বা একাধিক কোর্সে F গ্রেড রয়েছে তারা ২০২০ সালের পরীক্ষায় F গ্রেড প্রাপ্ত কোর্স বা কোর্সসমূহে অংশগ্রহণ করতে পারবে।

সকল F গ্রেড প্রাপ্ত কোর্সে পরীক্ষা দিয়ে (রেজিস্ট্রেশনের মেয়াদে) অবশ্যই ন্যূনতম “D’ গ্রেড এ উন্নীত করতে হবে। F গ্রেডকে উচ্চতর গ্রেডে উন্নীত করলে পরবর্তীতে গ্রেড উন্নয়নের কোন সুযােগ থাকবে না এবং ফলাফল যাই হােক না কেন B + গ্রেড এর বেশি প্রাপ্য হবে না।

২০১৯ সালের অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে C Promoted প্রাপ্ত পরীক্ষার্থীদের অনুপস্থিত পত্রে ২০২০ সালের পরীক্ষায় অবশ্যই অংশগ্রহণ করতে হবে। ব্যবহারিক পরীক্ষায় গ্রেড উন্নয়নের কোন সুযােগ নাই।

অনার্স ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপ কত টাকা ২০২২

  • তত্ত্বীয় (প্রতি পূর্ণ পত্র ২৫০/-)  :   ১৭৫০/- বা ১৫০০/-  টাকা
  • ইনকোর্স পরীক্ষার ফি (প্রতি পরীক্ষার্থী)  :  ৩০০/- টাকা
  • ব্যবহারিক ফি (প্রতি বিষয়ে)  :  ২৫০/- টাকা
  • কেন্দ্র ফি (প্রতি পরীক্ষার্থী)  :  ৪৫০/- টাকা
  • কেন্দ্র ব্যবহারিক ফি (প্রতি বিষয়ে)  :  ২৫০/- টাকা
  • তত্ত্বীয় (প্রতি অর্ধ পত্র)  :   ২৫০/- টাকা
  • মানােন্নয়ন/গ্রেড উন্নয়ন/অনিয়মিত (পত্র প্রতি ফি)  : ৩০০/-  টাকা
  • এভাবে হিসেব করলে (ব্যবহারিক ও অর্ধ তত্ত্বীয় দ্বয়ের ফি ব্যতীত) আনুমানিক নিয়মিত শিক্ষার্থীদের জন্য ফি আসবে প্রায় ২,২৫০ বা ২,৫০০ টাকা হতে পারে। তবে আপনি আপনার ফরমপুরণ পরই দেখতে পারবেন আপনাকে কত টাকা ফরম ফিলাপের ফি দিতে হবে।

অনলাইনে ফরম পূরণ করার পদ্ধতি

অনলাইনে ফরম পূরণ করার জন্য এখানে ক্লিক করে প্রবেশ করুন। তারপর যে পেজ আসবে তাতে ২০২২ সালের অনার্স ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপের বক্সের students for apply অপশনে ক্লিক করুন।

তারপর যে পেজ আসবে, তাতে আপনার রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিন এবং next / submit বাটনে ক্লিক করুন।

তারপর আবেদনকারীর নাম, পিতার নাম, কলেজের নাম এবং সাবজেক্ট এর নাম সহ অনার্স ১ম বর্ষের সাবজেক্টের তালিকা আসবে।

তো, ১) এই পেযে শুধু আপনাকে নির্দিষ্ট স্থানে আপনার মোবাইল নাম্বার দিতে হবে এবং ২) আপনার অপশনাল যে বিষয় সেটা (খুভ সতর্কতার সাথে) সেলেক্ট করবেন। তাছাড়া আরকিছু করা লাগবে না। মোবাইল নম্বর ও অপশনাল বিষয় সঠিক থাকলে, submit অপশনে ক্লিক করুন।

তারপর একটি ফরম প্রদর্শিত হবে। সেটা ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে বের করুন। এরপর ফরম পূরণের ফি জমা দিয়ে, RB নম্বর ফরমের উপর লিখে ফরমটিসহ নিম্নোক্ত কাগজপত্রসহ ছবি নিয়ে সংশ্লিষ্ট কলেজে নিয়ে যান এবং সেগুলো জমা দিন।

অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফরম জমা দিতে যা লাগবে

  • অনলাইনে পুরণকৃত ফরম- সর্বনিম্ন ১ কপি।
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি (অধ্যক্ষ কর্তৃক সত্যায়িত) সর্বনিম্ন – ১ কপি।  কলেজভেদে ২-৩ কপি লাগতে পারে।
  • টাকা ১০০/-  (কলেজের উপর নির্ভরশীল)

ফরম ফিলাপের সময় পরীক্ষার্থীদের জন্য করণীয়

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েব সাইট থেকে পরীক্ষার্থীগণ আবেদন ফরম সংগ্রহ করার পর নির্ধারিত ফিসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় প্রধানের নিকট জমা দিবে এবং কলেজ কর্তৃক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিবরণী ফরমে বিষয়কোড সঠিক এন্ট্রি করা হয়েছে কি না তা দেখে নিশ্চিত হয়ে স্বাক্ষর করতে হবে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েব সাইট  থেকে আবেদন ফরম Download করার সময় ফরমের নির্দিষ্ট স্থানে সিলেবাসে উল্লিখিত বিষয়কোড (ব্যবহারিকসহ) পূরণ করতে হবে। বিষয়কোড ভুল পূরণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় দায়ী থাকবে না।

পরীক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন কার্ডে উল্লিখিত অনার্স বিষয় ছাড়া অন্য কোন বিষয়ে আবেদন ফরমপূরণ করলে তার আবেদনপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে। এক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন কার্ডে কোন প্রকার ভুল থাকলে তা প্রবেশপত্র ইস্যুর আগেই সংশােধন করে নিতে হবে।

আবেদন ফরমে কোন প্রকার ভুল হলে কলেজ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ফরম Cancel করে পুনরায় আবেদন ফরম Download করতে হবে। আবেদন ফরমের সাথে রেজিস্ট্রেশন কার্ডের ফটোকপি নির্ধারিত তারিখের মধ্যে স্ব স্ব কলেজের নির্দেশনা অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট বিভাগে জমা দিতে হবে।

অনার্স ১ম বর্ষের প্রমােশন :   ক) গ্রেডিং পদ্ধতির সম্মান পরীক্ষায় BA, BSS, BBA এবং BSc এর ক্ষেত্রে ১ম বর্ষ থেকে ২য় বর্ষে প্রমােশনের জন্য সকল কোর্সে পরীক্ষা দিয়ে অন্তত ০৩ টি তত্ত্বীয় কোর্সে ন্যূনতম D গ্রেড পেতে হবে।   খ) ০১ টি কোর্সে অনুপস্থিত থেকে শিক্ষার্থী অন্যান্য সকল কোর্সে পরীক্ষা দিয়ে সে সব কোর্সে ন্যূনপক্ষে D গ্রেড পেলে পরবর্তী বর্ষে প্রমােশন পাবে। পরবর্তী বছরের পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে তাকে অনুপস্থিত বিষয়ে অবশ্যই পরীক্ষা দিতে হবে।  

অনার্স ১ম বর্ষের সিলেবাস : সকল বিষয়ের পরীক্ষা ০৪ বছর মেয়াদী অনার্স কোর্সের পাঠ্যসূচি ও সংশােধিত রেগুলেশন ২০১৩-২০১৪ সালের শিক্ষাবর্ষ থেকে কার্যকর সিলেবাস অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে।

পরীক্ষা পরিচালনা : সংশ্লিষ্ট কলেজ কেন্দ্র ফি বাবদ আদায়কৃত ৪৫০/- টাকা হতে ১৫০/- টাকা কলেজে জমা থাকবে যা দ্বারা পরীক্ষা সংক্রান্ত ব্যয় যেমন বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতায়াত, বিবরণী প্রিন্ট / ফটোকপি ইত্যাদি নির্বাহ করবে। অবশিষ্ট ৩০০/- টাকা কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (যে কেন্দ্রের সংশ্লিষ্ট কলেজের পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে সে কেন্দ্রের) নিকট পরীক্ষার পূর্বেই জমা দিতে হবে। যা দ্বারা কেন্দ্রের যাবতীয় ব্যয় (বিশ্ববিদ্যালয় হতে পরীক্ষার উত্তরপত্র, প্রশ্নপত্র সংগ্রহ, আনুষঙ্গিক দ্রব্যাদি গ্রহণ, পরীক্ষানুষ্ঠান ও উত্তরপত্র প্রেরণ ইত্যাদি) নির্বাহ করবে।

ইনকোর্স পরীক্ষার নম্বর প্রেরণ :   শিক্ষার্থীদের ফরমপূরণের সময় software-এর মাধ্যমে ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের নিয়মিত এবং ২০১৮-২০১৯, ২০১৭-২০১৮ ও ২০১৬ ২০১৭, শিক্ষাবর্ষের অনিয়মিত পরীক্ষার্থীদের সংশ্লিষ্ট কোর্সের পেপার কোড নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বরের বিপরীতে প্রাপ্ত মােট নম্বর On-Line এ প্রেরণ করতে হবে, এর এক কপি নম্বরপত্র সংশ্লিষ্ট শাখার উপ-পরীক্ষা নিখকের নিকট প্রেরণ এবং এক কপি সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় প্রধানের অফিসে সংরক্ষণ করতে হবে।

ফলাফলঃ এ পরীক্ষার ফলাফল গ্রেডিং পদ্ধতিতে প্রকাশ করা হবে।

অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফরম ফিলাপ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

অনার্স ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপের সময় বর্ধিত ২০২২
অনার্স ১ম বর্ষের সংশোধিত ফরম ফিলাপ ২০২২
অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফরম ফিলাপ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

20 thoughts on “অনার্স ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপ 2022”

  1. এরকম সমস্যা হওয়ার তো কথা না। আপনি যদি পুণরায় ১ম বর্ষে ভর্তি না হয়ে থাকেন তাহলে এমন সমস্যা করতে পারে। আর যদি ভর্তি হন তাহলে অপেক্ষা করুন। কারন সার্ভার সমস্যাও হতে পারে। ২-৩ দিন অপেক্ষা করার পর সমাধান না হলে কলেজে যোগাযোগ করুন।

    1. মোঃ আশিক

      আমার C-promoted আসছে এখন কী আমাকে ফরম ফিলাপ করতে হবে?

      1. আপনি মানউন্নয়ন পরীক্ষা দিতে চাইলে ফরম ফিলাপ করুন নতুবা না।

  2. ২০১০ সালে এইচ এস সি পাশ হলে সে কোথাও থেকে কি অনাস' করতে পারবে ।

  3. জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে কোনো কলেজে অনার্স করতে পারবেন না। তবে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে যেকোনো কলেজে অনার্স করতে পারবেন।

  4. আমি ১৬-১৭ এর শিক্ষার্থী। প্রথম বর্ষে সব বিষয়ে পাস। কিন্তু একটা বিষয়ে গ্রেড পয়েন্ট C আসছে। এবার মানোন্নয়ন দিতে চাইছিলা।। কিন্তু ফরম পূরন করতে গেলে রেজিঃ নং বক্স-এ বসালে Data not found লিখা আসে। কেন এরকম হচ্ছে জানালে উপকৃত হতাম।

  5. আপনি দুই বছর গ্যাপ দিয়েছেন। তাই আর ইম্প্রোভ দিতে পারবেন না। কারন ইম্প্রোভ পরের বছরই দিতে হয়।

    1. এপ্লাই যেকোনো কলেজে করতে পারবে। তবে চান্স পেতে হলে বুঝে শুনে এপ্লাই করতে হবে। আর তাই, উপজেলা কেন্দ্রিক কোনো কলেজে আবেদন করলে চান্স পাবে ৯৯%

  6. Amdadul Haque

    আমার ২০১৬ তে এস এস সি ও ২০২০ এ ইন্টার। আমি যে কোথাও আবেদন করতে পারছি না। তাহলে কি অন্য কোন উপায় আছে?

    1. অনার্স প্রফেশনালে বা ডিগ্রি তে ভর্তি হতে পারবেন। তবে আপনার জন্য উক্ত দুই প্রোগ্রামে ভর্তি হওয়ার জন্য এই বছর ই শেষ সুযোগ।

  7. আমি 2019-2020 এর ছাত্র। আমি ফরম পূরণ করি নাই। এখন কী করণীয়?

  8. আমার এক সহপাঠী (২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষ) ২০১৬ সালের প্রথম বর্ষ পরীক্ষায় এক বিষয়ে অকৃতকার্য হয়। পরবর্তীতে ২০১৭ সালের প্রথম বর্ষ পরীক্ষাতে অংশগ্রহণ করলেও ফল অপরিবর্তিত থাকে। এখন নতুন নোটিশ প্রকাশ হওয়ার পর ওয়েবসাইটে ফর্ম ফিল আপ করতে গেলে তার “Data Not Found” দেখাচ্ছে। কি করণীয়?

  9. jawedulislam

    আমি ১৯-২০ শিক্ষার্থী। মান উন্নয়নের ক্ষেত্রে C+ বিষয়গুলোতে পরীক্ষা দেওয়া যাবে কিনা? পাঁচ বিষয়ে ফেল করেছি। ফেলগুলোতে C বা D পাইলে পরবর্তীতে মান উন্নয়ন করা যাবে কিনা? জানাবেন। ধন্যবাদ

    1. না, C+ পেলে মানউন্নয়ন দেয়া যাবে না। আর হ্যা ফেলগুলোতে C বা D শুধুমাত্র পরের বছরই মানউন্নয়ন দিতে পারবে।

  10. আমি বর্তমানে অনার্স ফাইনাল ইয়ার এ আছি। ১ম ইয়ারের এক সাবজেক্টে F ছিল। এই বছর পরীক্ষা দিতে চাই এবং বর্ধিত তারিখ অনুযায়ী ফরম ফিলাপ করতে গেলে ইম্প্রুভ পরীক্ষার ক্ষেত্রেও কি একই পরিমান বিলম্ব ফি দিতে হবে? একটু জানাবেন।

    1. হ্যা, এখন যে-ই পরীক্ষার জন্য ফরম ফিলাপ করুন না কেন বিলম্ব ফি দিতে হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!