কেহ মৃত্যু মুখে পতিত হলে করনীয় কী কী?

আমরা সবাই মরণশীল ।সবাইকে একদিন না একদিন মৃত্যুর স্বাধ গ্রহণ করতে হবে। তাই, এ জীবনের মোহে পড়ে অযথা সময় নষ্ট মোটেই কাম্য নয় বরং আমাদের সর্বদা পরকালের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে এবং পরকালের জন্য নেক আমল করতে হবে। যদি কেহ মৃত্যুর সময় কালেমা পাঠ করে, তাহলে তারমত সৌভাগ্য আর কার হতে পারে? আল্লাহ তায়ালা আমাদের …

কেহ মৃত্যু মুখে পতিত হলে করনীয় কী কী? Read More »

জামাতে নামাযে দ্বিতীয় কাতারে একা দাড়ানো যাবে?

উত্তরঃ যদি কোন ব্যক্তি জামাতে নামাযে এসে দেখে যে কাতার পরিপূর্ণ, তাহলে সে কাতারের কোথাও ফাঁক থাকলে সেখানে প্রবেশ করবে। নচেৎ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করবে। তারপর, কেউ এলে তাঁর সাথে কাতার বাধা উচিৎ। আর সে আশা না থাকলে বা জামা’য়াত ছুটে যাওয়ার  ভয় থাকলে, পিছনে একা দাঁড়াবে। নতুবা কাতার বাধার জন্য সামনের কাতার থেকে কাউকে টেনে নিবে। …

জামাতে নামাযে দ্বিতীয় কাতারে একা দাড়ানো যাবে? Read More »

জানাজার নামাজ পড়ার সঠিক নিয়ম

জানাজার নামাজ পড়ার সঠিক নিয়ম । জানাজার নামাজ পড়ার পদ্ধতি কোনো মৃত মুসলমান ব্যক্তিকে কবর দেয়ার পূর্বে একজন ইমামের নেতৃত্বে দলবদ্ধভাবে যে নামাজ অনুষ্ঠিত হয়, সেটিই হচ্ছে জানাজার নামাজ। জানাযা একটি বিশেষ প্রার্থনা, যা মুসলমান অর্থাৎ ইসলাম ধর্মামলম্বীদের জন্য ফরযে কেফায়া বা সমাজের জন্য আবশ্যকীয় দায়িত্ব। তবে কোনো এলাকা বা গোত্রের পক্ষ থেকে একজন আদায় …

জানাজার নামাজ পড়ার সঠিক নিয়ম Read More »

অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২০১৯

২০১৮ সালের অনার্স প্রথম বর্ষ পরীক্ষার প্রকাশিত ফলাফলের উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের জন্য বিজ্ঞপ্তি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক  প্রকাশিত হয়েছে। আবেদনের সময়ঃ ১৪/০২/২০১৯ তারিখের সকাল ১০.০০ থেকে ০২/০৩/২০১৯ তারিখের বিকাল ২.০০ পর্যন্ত online এ আবেদন করা যাবে। টাকা প্রেরণের শেষ সময় ০৭/০৩/২০১৯ তারিখের বিকাল ৪.০০ টা পর্যন্ত। আবেদন করার নিয়মঃ পরীক্ষার্থী নিজেই নির্ধারিত আবেদন ফরম পূরণ করতে পারবে। ★★আবেদন …

অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২০১৯ Read More »

জুম্মার দিনের আদবসমূহ | Etiquettes of Jumma’s Day.

★★নিম্নে জুম্মার দিনের আদবসমূহ দেওয়া হলোঃ- ★★Etiquettes of jumma’s Day are given below:- ১)জুম্মার দিন ফজরের নামাযে ১ম রাকাতে সূরা সাজদা এবং ২য় রাকাতে সূরা দাহর পড়া। To read sura sajda in the first rakat and sura dahor in the second rakat of fajar’s salat of this day. (Bukhari: 891)২)জুম্মার দিন সূরা কাহাফ পড়া। To recite …

জুম্মার দিনের আদবসমূহ | Etiquettes of Jumma’s Day. Read More »

নামাযরত অবস্থায় কারো যদি বায়ু বের হয়, আর সে ঐ অবস্থায় নামায আদায় করে, তাহলে সে কি কাফের হয়ে যাবে?

উত্তরঃ- সে অবস্থায় নামায থেকে বের হয়ে অযু করে নামাযে যোগ দেওয়াই নিয়ম। কিন্তু আমাদের সমাজে এটাকে মানুষ খারাপ দৃষ্টিতে দেখে। এখানে মানুষের পরোয়া না করে, শরীয়তের পরোয়া করা উচিত।  তবে, কেউ যদি লজ্জাবশত অযু ছাড়াই নামাযের অভিনয় করে থাকে এবং পরে অযু করে নামায দোহরায়, তাহলে সে কাফের হবে না। তবে, নিয়ম ভাঙ্গার জন্য …

নামাযরত অবস্থায় কারো যদি বায়ু বের হয়, আর সে ঐ অবস্থায় নামায আদায় করে, তাহলে সে কি কাফের হয়ে যাবে? Read More »

Sust – সাস্টের মাস্টার্স প্রোগ্রামে ১ম ব্যাচের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালইয়ের ইন্সটিটিউট অব ইনফরমেশন এন্ড টেকোনোলজি কর্তিক পরিচালিত Masters in Information technology (MIT) – তে  সন্ধ্যাকালীন ১ম বর্ষে ভর্তির জন্য আগ্রহী প্রার্থীরদের নিকট থেকে আবেদনপত্র আহবান করা যাচ্ছে । আবেদন সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য নিচে দেওয়া হলোঃ- sust masters admission- Tanvir Hussain -01 sust masters admission- Tanvir Hussain -02

হঠাৎ কোনো মাসে ১০ দিনের বেশি মাসিক হলে করণীয় কি?

হঠাৎ কোনো মাসে ১০ দিনের বেশি মাসিক (স্রাব) হলে করণীয় বা বিধান যদি কোনো মহিলার ৩, ৪ বা ৫-৯ দিন মাসিক হওয়ার অভ্যাস থাকে, কিন্তু হঠাৎ কোনো মাসে ১০ দিনের বেশি মাসিক হয়। তখন তার পূর্বে যতদিন মাসিক হওয়ার অভ্যাস ছিল, ঠিক ততদিন হচ্ছে মাসিক অর্থাৎ ঠিক ততদিন তার মাসিকের হিসাব ধরবে। আর বাকি দিনগুলো ইস্তেহাযা …

হঠাৎ কোনো মাসে ১০ দিনের বেশি মাসিক হলে করণীয় কি? Read More »

হায়েজের (মাসিক) বিধান সমূহ বিস্তারিত

আল্লাহ তায়ালার ইবাদাত করতে যেমন আদেশ করা হয়েছে ঠিক তেমনি রয়েছে নানান বিধি নিষেধ। আমরা চাইলে যেকোনো সময় যেকোনো ইবাদাত করতে পারবো না। কারন কোনো কোনো সময় নির্দিষ্ট কোনো ইবাদত করতে স্বয়ং আল্লাহ তায়ালা নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন। তার মধ্যে একটি মাসিক বা হায়েজ চলাকালীন সময়। এটি আল্লাহ তায়ালা প্রদত্ত মহিলাদের প্রাকৃতিক একটা সমস্যা। যাইহোক আমরা এখানে …

হায়েজের (মাসিক) বিধান সমূহ বিস্তারিত Read More »

আযানের জবাব বা উত্তর এর পদ্ধতি কি এবং কখন দিবেন?

উত্তরঃ- আযানের জবাব দেওয়া প্রত্যেক মুসলমানের একান্ত কর্তব্য। আযানের জবাব পূর্ণ আন্তরিকতার সাথে প্রদান করলে, সে বেহেশতে প্রবেশ করবে বলে নবী করীম (সা) ঘোষণা করেছেন।  ***আযানের জবাব দেওয়ার পদ্ধতি হচ্ছে নিম্নরুপঃ- আযানের জবাব দু-ভাবে দেওয়া হয়     ক্বউলীঃ– এর মানে হলো, আযানের বাক্য শ্রবণের পর, শ্রোতা আস্তে আস্তে ঐ বাক্যগুলো বলবে । তবে হায়্যায়ালাস সালাহ ও …

আযানের জবাব বা উত্তর এর পদ্ধতি কি এবং কখন দিবেন? Read More »

error: Content is protected !!