এমফিল ও পিএইচডি ভর্তি ২০২১-২০২২

এমফিল ও পিএইচডি ভর্তি ২০২১-২০২২এমফিল ভর্তি ২০২১-২০২২পিএইচডি ভর্তি ২০২১-২০২২ | জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এমফিল পিএইচডি ভর্তি ২০২১-২০২২ : জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে এমফিল ও পিএইচডিতে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি ২০২১ আজ (০৬/০৭/২০২১) তারিখে প্রকাশিত হয়েছে। নিম্নে ভর্তির নিয়মাবলিসহ প্রয়োজনীয় সকল তথ্য দেওয়া হলো:-

Update : বৈশ্বিক মহামারীর কারনে এমফিল ও পিএইচডি ভর্তির ২৬ থেকে ২৯ আগস্ট তারিখের লিখিত পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। তবে এমফিল ও পিএইচডি ভর্তির মৌখিক পরীক্ষা ০৫-০৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জুম এপের মাধ্যমে গ্রহণ করা হবে। বিজ্ঞপ্তি নিচের দিকে দেখুন।

যেসব বিষয়ে এম ফিল ও পিএইচডি করা যাবে

যেসব বিষয়ে এম ফিল ও পিএইচডি করা যাবে

প্রাথমিক আবেদন ও চূড়ান্ত ভর্তির সিডিউল ২০২

এমফিল ও পিএইচডি ভর্তি সময় / তারিখ ২০২১

এমফিল প্রোগ্রামে আবেদন করার লিংকপিএইচডি প্রোগ্রামে আবেদন করার লিংক

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এমফিল / পিএইচডি ভর্তির যোগ্যতা ২০২১

এম ফিল ভর্তির ক্ষেত্রেঃ 

  1. সকল পরীক্ষায় ন্যূনতম সিজিপিএ ২.২৫ / দ্বিতীয় বিভাগ / শ্রেণিসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) এবং স্নাতকোত্তর উভয় পরীক্ষার আলাদাভাবে ন্যূনতম ৫০% নম্বর বা সিজিপিএ ২.৫০ থাকতে হবে।
  2. তবে পাচ বছরের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন  জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীভুক্ত কলেজ শিক্ষকদের মধ্যে যাদের উভয় পরীক্ষায় গড়ে  ন্যূনতম ৫০% নম্বর বা সিজিপিএ ২.৫০ রয়েছে, তারা আবেদন করার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।
  3. অথবা স্নাতক (পাস) সহ স্নাতকোত্তর ডীগ্রীধারীদের ক্ষেত্রে উভয় পরীক্ষার আলাদাভাবে ন্যূনতম ৫৫% নম্বর বা সিজিপিএ ২.৭৫ থাকতে হবে। আর  অধীভুক্ত কলেজ শিক্ষকদের মধ্যে যাদের স্নাতক (পাস) ও স্নাতকোত্তর উভয় পরীক্ষায় গড়ে  ন্যূনতম ৫৫% নম্বর বা সিজিপিএ ২.৫০ রয়েছে, তারা আবেদন করার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

পি এইচ ডি ভর্তির ক্ষেত্রেঃ-

  1. এম ফিল / সমমানের ডিগ্রিধারী হতে হবে।
  2. জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন-ক্যাম্পাস এম এ এস, এডভান্সড এম বি এ ডিগ্রিধারীগণও পিএইচডি প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। উভয়ক্ষেত্রে প্রার্থীর স্বীকৃত জার্নালে ন্যূনপক্ষে একটি গবেষণা প্রবন্ধ থাকতে হবে।
  3. বিশ্ববিদ্যালয় ও  বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীভুক্ত কলেজ / প্রতিষ্টানের শিক্ষকদের মধ্যে, যাদের শিক্ষা জীবনে ন্যূনতম ৩ টি প্রথম বিভাগ/শ্রেণী, ৩ বছর শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা এবং দেশি-বিদেশি স্বীকৃতমানের জার্নালে কমপক্ষে ২ টি গবেষণামূলক প্রবন্ধ রয়েছে, তারা সরাসরি পিএইচডি প্রোগ্রামে আবেদন করতে পারবে। বাংলা ও ইঙ্গরেজি বিষয়ের ক্ষেত্রে ন্যূনতম শিক্ষা জীবনে ২ টি প্রথম বিভাগ/শ্রেণী  থাকতে হবে।

    প্রোগ্রামের মেয়াদ :  এম ফিল প্রোগ্রামের মেয়াদ এক বছরের কোর্সওয়ার্ক সহ দুই বছর  এবং পি এইচ ডি প্রোগ্রামের মেয়াদ ৩ বছর।

###শর্তাবলিঃ এম ফিল প্রোগ্রামে ১টি এবং পিএইচডি প্রোগ্রামে ২ টি সেমিনার প্রদান করতে হবে।

এম ফিল ও পি এইচ ডি প্রোগ্রামের চূড়ান্ত ভর্তি ফি ২০২১

আমরা কমবেশ সবাই যেকোনো কিছুর ক্ষেত্রে খরচের হিসেবটা আগে করি, আর সে জন্য অনেকে এমফিল করার খরচ, পিএইচডি করার খরচ খুজে থাকেন। আর তাই আমি এখানে এই দুইটা ব্যাপারে্র খরচ আলাদাভাবে দিলাম। চলুন দেখে নেই বাংলাদেশে এমফিল পিএইচডি করার খরচ :

এমফিল চূড়ান্ত ভর্তি ফি

খাতনির্ধারিত ফি
ভর্তি ফি ২০০০/- টাকা
রেজিস্ট্রেশন ফি৩০০০/- টাকা
টিউশন ফি (১৫০০*১ মাস)১৫০০/- টাকা
লাইব্রেরী জামানত ফি (ফেরতযোগ্য)২৫০০/- টাকা
সেশন ফি৫০০০/- টাকা
সর্বমোট১৪০০০/- টাকা

পিএইচডি চূড়ান্ত ভর্তি ফি

খাতনির্ধারিত ফি
ভর্তি ফি৩০০০/- টাকা
রেজিস্ট্রেশন ফি৪০০০/- টাকা
টিউশন ফি (২০০০*১ মাস)২০০০/- টাকা
লাইব্রেরী জামানত ফি (ফেরতযোগ্য)৩০০০/- টাকা
সেশন ফি৭০০০/- টাকা
সর্বমোট১৯০০০/- টাকা

উপোরিউক্ত উভয় প্রোগ্রামের ফি শুধু প্রথমবার যখন ভর্তি হবেন তখন এত টাকা লাগবে। তাছাড়া টিউশন ফি শুধু এক মাসের ধরা হয়েছে। যদি এমফিল প্রোগ্রামের ১ বছরের টিউশন ফি হিসেব করি তাহলে ১২০০০ টাকার মত আসবে। তাছাড়া আপনার খাওয়া দাওয়া, মেস ভাড়া, যাতায়ত, পরীক্ষার ফি সহ সব মিলিয়ে আমার ধারণা ১ লক্ষ্য টাকার মত লাগবে। আমি আনুমানিক হিসেব করেছি তাই কমবেশ হতে পারে।

আরও পড়ুন

এমফিল ও পিএইচডি ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি ২০২১

এমফিল ও পিএইচডি ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি ২০২১

 এমফিল ও পিএইচডি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১

এমফিল পিএইচডি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১-২০২২ part 1

 

এমফিল পিএইচডি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১-২০২২ part 3

26 thoughts on “এমফিল ও পিএইচডি ভর্তি ২০২১-২০২২”

  1. আমি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে রাষ্ট্রবিজ্ঞানেে অনার্স ও মাস্টার্স সম্পন্ন করেছি।এখন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম.ফিল/পি.এইচ.ডি করতে পারবো কি?জানালে উপকৃত হতাম।

    1. Tanjima alam

      আমি অনার্স ফাইনালে পড়ছি আমি পিএইচডি কখন করতে পারব?

      1. পিএইচডি করতে হলে ২ বছরের এমফিল কোর্স করতে হবে। তাই সব মিলিয়ে আরও (মাস্টার্স ১ + এমফিল ২) ৩ বছর পর।

  2. হ্যা, পারবেন। কেননা বিজ্ঞপ্তিতে এটা বলা নেই যে, শুধুমাত্র জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক-স্নাতকোত্তর (পাস-অনার্স উভয় ক্ষেত্রে) পাশ হতে হবে। তাই ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফাজিল ও কামিল (পাস-অনার্স উভয় ক্ষেত্রে) সম্পূর্ণ করলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এমফিল কোর্সে ভর্তি হতে পারবেন। তবে (অনার্স এর ক্ষেত্রে) উভয় পরীক্ষায় ন্যূনতম সিজিপিএ আলাদাভাবে ২.৫০ থাকতে হবে আর (পাস এর ক্ষেত্রে) উভয় পরীক্ষায় ন্যূনতম সিজিপিএ আলাদাভাবে ২.৭৫ থাকতে হবে।

  3. ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এ বছরের এমফিল ভর্তির কোন তথ্য দিতে পারবে?

  4. বাংলাদেশে এমফিল আর কোথায় করা যায়? এখন কি আবেদনের সময় আছে?

  5. ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিল ভর্তির আবেদন চলবে ১৮/১০/২০২০ তারিখ থেকে ১৮/১১/২০২০ তারিখ পর্যন্ত।

  6. জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়াও প্রায় সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিল করতে পারবেন। আর এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিলে আবেদন শুরু হয়েছে।

  7. আগে এমপিল নাকি পিএইচডি? এমপিল এবং পিএইচডি কয় বছর মেয়াদী? ফাজিল বা অনার্স কি করা যায়?

  8. গ‌নিত শাস্ত্রে মুস‌লিম‌দের অবদান , এম‌ফিল করা যা‌বে কি?

  9. 'গণিত' বিষয়ে এমফিল করে পিএইচডি করা যাবে। তবে 'গণিত শাস্ত্রে মুসলিমদের অবদান' নামে কোনো বিষয় নাই।

  10. আমি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বিএ(পাস কোর্স)669 নম্বর পেয়েছি, রাষ্ট্রবিজ্ঞানে প্রথম বিভাগ পেয়ে মাস্টার্স পাস করেছি, এখন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় হতে এমফিল প্রোগ্রাম করতে পারবো কিনা? তাছাড়া একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় হতে এল এল বি ( দুই বছর মেয়াদী) 3.08ও এল এল এম 3.22( দুই বছর মেয়াদী) এবং ইংলিশ মাস্টার্স( দুই বছর মেয়াদী) সম্পন্ন করেছি,

  11. আপনার বিএ (পাস) কোর্সের এই ৬৬৯ নম্বর যদি মোট নম্বরের ৫৫% হয় অথবা জিপিএ হিসেবে ২.৭৫ পয়েন্ট হয় তাহলে আপনি এমফিল করতে পারবেন। কেননা আমি বলতে পারছি না যে আপনি মোট কত নম্বরের পরীক্ষা দিয়েছেন। যদি বলতে পারেন তাহলে বলতে পারবো। আর মাস্টার্স এর পয়েন্ট ঠিক আছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!