অনার্স ভর্তি ২০২০-২০২১nu honours admission 2020-2021 | জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনার্স ১ম বর্ষের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২০-২০২১ অনার্স ভর্তির প্রাথমিক আবেদন জুন মাসের ০৮ তারিখ হতে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও “কোভিড-১৯” মহামারির বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত ঘোষণা করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ সম্বন্ধ্যে বিস্তারিত নিম্নে জানতে পারবেন। ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশিত হয়েছে কিছুদিন পূর্বে। তাই এখন এখন যারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তি হতে চাইছেন। চলুন জেনে নেই গত বর্ষের আলোকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তি এবং ২০২১ সালের অনার্স ভর্তি পরীক্ষা সম্বন্ধ্যে বিস্তারিত তথ্যবলি :

জরুরি বিজ্ঞপ্তি : করোনা মহামারির কারণে গত ০৮ জুন, ২০২১ হতে শুরু হতে যাওয়া অনার্স ভর্তি কার্যক্রম পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। পরবর্তী আপডেট পেতে আমাদের সাথে থাকুন। ধন্যবাদ!

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ভর্তি ২০২০-২০২১

সুপ্রিয় বন্ধুরা! আপনারা এডু মাসাইলের এই পোষ্ট থেকে জানতে পারবেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনার্স ভর্তি যোগ্যতা, অনার্স ভর্তি পরীক্ষা পদ্ধতি, প্রাথমিক আবেদন পদ্ধতি, অনার্স ভর্তি হতে যেসব কাগজপত্র লাগবে, অনার্স চূড়ান্ত ভর্তি পদ্ধতি সহ অনার্স ভর্তির বিস্তারিত তথ্যবলি। নিম্নে অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তির যোগ্যতা, অনলাইন আবেদন পদ্ধতি এবং ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হলো :

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ভর্তি ২০২১ কবে?

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে অনার্স ভর্তির প্রাথমিক আবেদন চলবে আগামী ৮ জুন হতে ২২ জুন, ২০২১ তারিখ পর্যন্ত। আর ক্লাশ শুরু হবে ২৮ জুলাই থেকে। অন্যদিকে অনার্স প্রফেশনাল ভর্তির ফরম বিতরণ চলবে ২৩ জুন থেকে ১১ জুলাই ২০২১ তারিখ পর্যন্ত। আর ক্লাশ শুরু ১২ আগস্ট থেকে

২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের অনার্স ১ম বর্ষের অটোপাশ রেজাল্ট ২০২১ দেখুন

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তি পরীক্ষা হবে?

২০২১ সালে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর অধীনে আদৌ কোনো অনার্স ভর্তি পরীক্ষা ২০২১ হবে কিনা, সে ব্যাপারে নিশ্চিত জানা গেছে। গতবছর ফেব্রুয়ারি মাসে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য একমত হয়েছিলেন যে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষ থেকে অনার্স ভর্তিতে ভর্তি পরীক্ষা নিবেন কিন্তু পরে তা বাতিল করে দেন এবং ভর্তি পরীক্ষার পরিবর্তে জিপিএ এর মাধ্যমে এবারও অনার্সে ভর্তি করানো হবে জানান।

তবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ১৩ টি শতবর্ষী কলেজের ভর্তি পরীক্ষার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে আবেদন করা হলেও, গত শনিবার (৫/৬/২০২১) তারিখে জানা গেছে যে, চলমান করোনা পরিস্থিতির কারণে চলতি ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে তা আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে না। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে বিস্তারিত খবর এবং আপডেট পেতে নিম্নোক্ত লিংকে যান :  জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ভর্তির যোগ্যতা ২০২১

  • বাংলাদেশে স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষা বোর্ড অথবা বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এর মানবিক শাখা থেকে ২০১৭/২০১৮ সালের SSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ২.৫০ পয়েন্ট এবং  ২০১৯/২০২০ সালের HSC বা সমমান পরীক্ষায় ৪র্থ বিষয়সহ কমপক্ষে জিপিএ ২.৫০ পয়েন্টপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা ২০২১ সালের অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে।
  • বাংলাদেশে স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষা বোর্ড অথবা বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এর বিজ্ঞান / ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে ২০১৭/২০১৮ সালের SSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০পয়েন্ট এবং  ২০১৯/২০২০ সালের HSC বা সমমান পরীক্ষায় আলাদাভাবে ৪র্থ বিষয়সহ কমপক্ষে জিপিএ ২.৫০পয়েন্টপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা ২০২১ সালের অনার্স ১ম বর্ষে আবেদন করতে পারবে।
  • বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের শুধুমাত্র ১) HSC ভোকেশনাল ২) HSC বিজনেস ম্যানেজমেন্ট ৩) ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স কোর্স থেকে উত্তীর্ণ প্রার্থীরা ২ নং শর্ত সাপেক্ষে এ ভর্তি কার্যক্রমে আবেদন করতে পারবে।
  • আবেদনকারীর HSC / সমমান শ্রেণির পঠিত বিষয়সমূহ থেকে ভর্তি যোগ্য (Eligible) বিষয় নির্ধারন করা হবে। উক্ত পঠিত বিষয়ে (২০০ নম্বরের মধ্যে) ন্যূনতম গ্রেড পয়েন্ট ৩.০০ থাকতে হবে।
  • বিদেশী সার্টিফিকেটধারী আবেদনকারীদের ক্ষেত্রেও বাংলাদেশ -এ স্বীকৃত যে কোন শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক তাদের অর্জিত SSC ও HSC পর্যায়ের নম্বর পত্রের সমতা নিরুপণ করা হলে, তারাও ভর্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন করতে পারবে। তবে এক্ষেত্রে আবেদনকারীকে ভর্তি নির্দেশিকার সকল শর্ত পূরণ করতে হবে।
  • আবেদনকারীকে ২০১৭/২০১৮ সালের O-level পরীক্ষায় কমপক্ষে ৩টি বিষয়ে B গ্রেডসহ অন্তত ০৪টি বিষয়ে উত্তীর্ণ এবং ২০১৯/২০২০ সালের A-level পরীক্ষায় ০১টি বিষয়ে B গ্রেডসহ অন্তত ০২টি বিষয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে এক্ষেত্রে আবেদনকারীকে ভর্তি নির্দেশিকার অন্যান্য সকল শর্ত পূরণ করতে হবে। এ সকল প্রার্থীদের ডীন, স্নাতকপূর্ব শিক্ষাবিষয়ক স্কুল, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে সরাসরি যোগাযোগ করতে হবে।

অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তির গুরুত্বপূর্ণ তারিখ ২০২১

অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তি প্রক্তিয়া ২০১৯-২০২০

  • জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীকে প্রথমে প্রাথমিক আবেদন করতে হবে। প্রাথমিক আবেদনে শিক্ষার্থী নির্বাচিত হলে, সে অনার্স ১ম বর্ষের জন্য চূড়ান্ত ভর্তির ফরম তুলতে পারবে।
  • ভর্তি পরীক্ষা ছাড়াই এসএসসি ও এইচএসসি ফলাফলের ভিত্তিতে ছাত্রছাত্রী ভর্তি করানো হবে। প্রতিটি কলেজের জন্য আলাদাভাবে মেধা তালিকা তৈরী করে পরীক্ষার্থীদের পছন্দক্রম অনুযায়ী ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির বিষয় বরাদ্দ দেয়া হবে।
  • একই প্রতিষ্ঠান/কলেজে একই বিষয়ে দুই বা ততোধিক আবেদনকারীর প্রাপ্ত ফলাফল একই হলে, সে ক্ষেত্রে সকল আবেদনকারীকে পর্যায়ক্রমে চতুর্থ বিষয়সহ SSC ও HSC পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ এর যথাক্রমে ৪০% ও ৬০% এবং প্রয়োজন হলে SSC ও HSC পরীক্ষার মোট প্রাপ্ত নম্বরের যথাক্রমে ৪০% ও ৬০% এর ভিত্তিতে মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে।
  • এর পরেও যদি দুই বা ততোধিক আবেদনকারীর প্রাপ্ত ফলাফল একই হয়, তা হলে যার বয়স কম হবে তাকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
অনার্স ভর্তির আবেদন ফি ও কলেজ চয়েজ

অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তি কার্যক্রমের আবেদন ফি ২৫০/- টাকা। বি.দ্র. আবেদন ফরমে কোনো ভুল থাকলে, আবেদনকারী তা Cancel করে নতুন করে আবেদন করতে পারবে। তবে ১ বারের বেশি Cancel করা যাবেনা। আর, কলেজ কর্তৃক আবেদন ফরমটি নিশ্চিত হলে, তা আর Cancel করা যাবে না। প্রার্থী/আবেদনকারী শুধুমাত্র ১টি কলেজে আবেদন করতে পারবে।

অনলাইনে অনার্স ভর্তির প্রাথমিক আবেদন নিয়ম

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তির প্রাথমিক আবেদন পাচটি ধাপে সম্পন্ন করতে হয়ে থাকে। আবেদন করার আগে নিম্নোক্ত কাগজপত্র বা তথ্যাদি সাথে রাখুন। প্রাথমিক আবেদন করতে যা যা লাগবে নিম্নরুপ :

  • SSC বা সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর
  • HSC বা সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর
  • এক কপি পাসপোর্ট সাইয রঙ্গিন ছবি
  • একটি ইমেইল এড্রেস।
  • একটি মোবাইল নম্বর

প্রথম ধাপ : অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন করতে এখানে ক্লিক করুন . এবার SSC ও HSC পরীক্ষার রোল নম্বর, রেজিঃ নম্বর, বোর্ড ও পাসের সন দিয়ে Next বাটনে ক্লিক করুন।

দ্বিতীয় ধাপ : এই ধাপে আবেদনকারী তার SSC ও HSC পরীক্ষার ফলাফলসহ সব তথ্য দেখতে পাবে এবং নিচের দিকে গেলে আবেদনকারীর নামসহ তার পিতা-মাতার নাম, জন্মতারিখ এবং লিঙ্গ অপশন দেয়া থাকবে, সেই অপশন ভাল করে দেখবেন যে কি দেওয়া আছে। (এখানে কোনো ভুল হলে অবশ্যই সঠিক লিঙ্গ দিবেন) তারপর Next বাটনে ক্লিক করুন।

তৃতীয় ধাপ :  তারপর যে পেজ আসবে সে পেজের একেবারে বাম দিকের প্রথম কলামে দেখতে পাবেন Eligible Subject List (অর্থাৎ যেসব বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু আছে তা) দেওয়া আছে। এই তালিকা থেকে আপনি জানতে পারবেন যে, আপনি কি কি বিষয় নিয়ে অনার্স এ পড়তে পারবেন।

তারপর দ্বিতীয় কলাম থেকে আপনাকে কলেজ নির্বাচন করতে হবে (উল্লেখ্য যে, শুধুমাত্র একটি কলেজে আবেদন করতে পারবেন) কলেজ সিলেক্ট করতে আপনাকে প্রথমে বিভাগ নির্বাচন করতে হবে। তারপর জেলা নির্বাচন করতে হবে (অবশ্য আপনি যে কলেজ চয়েজ দিতে চান সেই কলেজ যে বিভাগ ও জেলায় অবস্থিত, আপনাকে সেসব বিভাগ ও জেলার নাম দিতে হবে) এবং সব শেষে নিচের বক্স থেকে কাঙ্ক্ষিত বা ভর্তিচ্ছু কলেজের নাম নির্বাচন করতে হবে।

এরপর দ্বিতীয় কলামে আপনি Subject choice করার অপশন পাবেন এবং কোন বিষয়ে কতটি সিট আছে, তাও ডান পাশে দেখতে পাবেন। এখন আপনি যে সাবজেক্টি প্রথম চয়েজ দিবেন, সেটাতে প্রথমে ক্লিক করুন। তারপর, দুই নম্বরে যে সাবজেক্ট চয়েজ দিবেন সেটাতে ক্লিক করুন। এভাবে একের পর এক সাবজেক্ট চয়েজ করতে পারবেন। (উল্লেখ্য সাবজেক্ট চয়েজ খুভ সাবধানে দিবেন)। সাবজেক্ট চয়েজ করা শেষ হলে Next বাটনে ক্লিক করুন।

চথুর্থ ধাপ : এখন যে পেজ আসবে তাতে কোটা দেয়া থাকবে। আপনার যদি কোনো কোটা থাকে তাহলে Yes অপশনে ক্লিক করে কাঙ্ক্ষিত কোটা সিলেক্ট করূন। এখন যে পেজ আসবে তাতে কোটা দেয়া থাকবে। আপনার যদি কোনো কোটা থাকে তাহলে Yes অপশনে ক্লিক করে কাঙ্ক্ষিত কোটা সিলেক্ট করূন।

পঞ্চম ধাপ : এই পর্যায়ে আবেদনকারীর একটি ছবি, একটি মোবাইল নম্বর এবং একটি ই-মেইল প্রদান করুন। (তবে ছবিটি  ১৫০ পিক্সেল উচ্চতা, ১২০ পিক্সেল প্রস্থ এবং সাইজ ৫০ কেবি সহ png ফরম্যাটে হতে হবে) তারপর preview application অপশনে ক্লিক করে দেখুন আপনার দেওয়া তথ্য ঠিকটাক আছে কিনা। আপনি নিশ্চিত হলে নিচে থাকা Submit Application অপশনে ক্লিক করুন। তারপর pdf আকারে একটি ফাইল (ফরম) আসবে সেটা ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিন।

ফরমটি প্রিন্ট করার পর আবেদনকারী ফরমটিতে সাক্ষর দিয়ে নিম্নোক্ত কাগজপত্র সহ আবেদন ফি ২৫০ টাকা ভর্তিচ্ছু কলেজে জমা দিতে হবে। কলেজে এইসব জমা দেয়ার পর যদি আপনার আবেদন ফরমে দেওয়া নম্বরে একটি মেসেজ আসে যে ফরম জমা হয়েছে তখন আপনার আবেদন সম্পূর্ণ হবে। আর যদি না আসে তাহলে অবশ্যই কলেজের সাথে যোগাযোগ করুন।

আবেদন ফরমের সাথে যা যা জমা দিতে হবে

আবেদনকারীকে প্রথমে প্রিন্ট করা প্রাথমিক আবেদন ফরমটির নির্ধারিত স্থানে স্বাক্ষর করতে হবে। তারপর উক্ত আবেদন ফরমের সাথে প্রার্থীর SSC ও HSC / সমমান পরিক্ষার সত্যায়িত নম্বরপত্র/মার্কশীট এবং প্রার্থীর SSC ও HSC / সমমান পরিক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ডের সত্যায়িত কপি, এবং আবেদন ফি বাবত ২৫০/- টাকা সংশ্লিষ্ট কলেজে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জমা দিতে হবে।

প্রাথমিক আবেদন করার পর করণীয়

প্রাথমিক আবেদন করার পর কিছুই করতে হবে না। তবে প্রাথমিক আবেদন ফরম জমা দেওয়ার পর কলেজ থেকে যদি প্রার্থীর মোবাইলে SMS না আসে তাহলে অনলাইনের মাধ্যমে জানতে পারবেন যে আপনার আবেদন ফরম কলেজে জমা হয়েছে কি না। তা দেখতে এখানে ক্লিক করুন

আবেদন ফরম জমা দেওয়ার কয়েকদিনের মধ্যে আবেদনকারী ভর্তির জন্য নির্বাচিত হলে সংশ্লিষ্ট কলেজ আবেদনকারীর প্রাথমিক আবেদন Online -এ নিশ্চায়ন করবে এবং সে সকল আবেদনকারীর মোবাইল নম্বরে SMS এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য যে, প্রাথমিক আবেদন নিশ্চায়ন ব্যতীত কোন প্রার্থীই ভর্তির যোগ্য বলে বিবেচিত হবে না। কলেজে আবেদন পত্র জমা দেওয়ার পরে প্রার্থী তার মোবাইল ফোনে SMS না পেলে বুঝতে হবে যে, তার আবেদন ফরম কলেজ কর্তৃক নিশ্চায়ন করা হয়নি। এক্ষেত্রে প্রার্থীকে সংশ্লিষ্ট কলেজে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে যোগাযোগ করতে হবে।

ফলাফল ও ভর্তি প্রক্রিয়া

মেধাতালিকায় যার পয়েন্ট বেশি থাকবে সেই ভর্তির সুযোগ পাবে। আর ফলাফল কয়েকটি ধাপে প্রকাশ করা হবে। যেমনঃ ১ম মেরিটের ফলাফল১ম মাইগ্রেশন ও ২য় মেধা তালিকা২য় মাইগ্রেশন ও কোটা মেধাতালিকা১ম রিলিজ স্লিপ রেজাল্ট এবং ২য় রিলিজ স্লিপ রেজাল্ট

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স চূড়ান্ত ভর্তি পদ্ধতি

২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের অনার্স ১ম বর্ষের চূড়ান্ত ভর্তির জন্য প্রার্থীকে এখান থেকে (Honours Tab -এ থেকে) Honours applicant’s Login -এ ক্লিক করে (ওয়েবসাইটে প্রদর্শিত তথ্য ছকে) প্রার্থীর রােল নম্বর ও পিন সঠিকভাবে এন্ট্রি দিয়ে Login করুন। এরপর Admission Information নামে একটি পেইজ তথা আপনি যে কলেজে নির্বাচিত হয়েছেন, তা দেখতে পাবেন। এবং একইসাথে Application Form নামে একটি অপশন থাকবে, চূড়ান্ত ভর্তির জন্য সেটাতে ক্লিক করতে হবে।

তারপর, যে পেজ আসবে তাতে আপনার নাম, পিতার সহ আপনি যে বিষয়ে চান্স পেয়েছেন তা সম্বলিত একটি পেজ আসবে। সেখানে আপনাকে Nationality এর বক্সে Bangladeshi লিখবেন। তারপর, নিজ ধর্ম select করবেন। এরপর, একজন গার্জিয়ান এর নাম দিবেন। তারপর, গার্জিয়ান এর ফোন নম্বর এবং তার বার্ষিক আয় দিবেন।

এরপর নিচে একটি লেখা থাকবে যে, Do you want to change your assignment subject on based your preference list? অর্থাৎ আপনি যদি ১ম চয়েজ না পান, তাহলে Yes এ ক্লিক করবেন নতুবা No তে ক্লিক করবেন। এরপর, নিচের দিকে (বাম পাশে) আপনার স্বায়ী এবং(ডান পাশে) বর্তমান ঠিকানা দিবেন। তারপর সবকিছু সঠিক হলে Save Information এ ক্লিক করুন।

তারপর যে পেজ আসবে, সেখান থাকা Download অপশনে ক্লিক করে, ভর্তি ফরম ডাউনলোড করে প্রিন্ট করুন। একটি থাকবে কলেজ কপি এবং একটি থাকবে স্টুডেন্ট কপি। এরপর কলেজে উপরিউক্ত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ ফরমটি জমা দিবেন। তারপর কলেজ কর্তৃপক্ষ অনলাইনে আপনাকে নিশ্চায়ন করলে আপনার ভর্তির প্রক্রিয়া শেষ হবে।

অনার্স ভর্তি হতে যেসব কাগজপত্র লাগবে ২০২০-২০২১

  • অনলাইনে পূরণকৃত মূল আবেদন ফরম – ২ কপি (একটি কপি কলেজ কপি এবং অন্যটি স্টুডেন্ট কপি)
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি ৪টি এবং পেছনে নাম লিখে দিতে হবে (কলেজভেদে কম বেশি হতে পারে)।
  • SSC বা সমমান ও HSC বা সমমান পরীক্ষার মূল নম্বরপত্র বা মার্কশিট – ১টি করে ২ টি।
  • SSC বা সমমান ও HSC বা সমমান পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি – ১ করে ২ কপি।
  • পাঠ বিরতি বা শিক্ষা বিরতি সনদপত্র। (২০১৮ সালে এইচএসসি পাশ করছে শুধু তাদের জন্য প্রযোজ্য)
  • কোটার সনদপত্র যারা মুক্তিযোদ্ধা, পোষ্য কোটায় আবেদন করছেন তাদের জন্য প্রযোজ্য।

বিবিধ

  • আবেদন ফরমে শিক্ষার্থীর কোন তথ্য অসত্য, ভুল বা অসম্পুর্ণ বলে প্রমানিত হলে, তার আবেদন ফরম/চুড়ান্ত ভর্তি বাতিল করার অধিকার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।
  • এই ভর্তি কার্যক্রমের যে ধারা/নিয়মাবলীর সংশোধন, সংযোজন, পরিবর্তন বা বাতিল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।
  • একই শিক্ষাবর্ষের কোনপ্রার্থী দ্বৈত ভর্তি হলে তা বাতিল করার অধিকার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তি স্থগিত ঘোষণা ২০২১

অনার্স ভর্তি স্থগিত ঘোষণা ২০২১

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০১৯-২০২০

অনার্স ভর্তি বিজ্ঞপ্তি
আরও পড়ুন

This Post Has 124 Comments

  1. তানজিনা

    ভাইয়া আমি বিজ্ঞান থেকে SSC & HSC তেও 3.83 পেয়েছি। মোট পয়েন্ট ৭.৬৬ হয়। আমি ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ & গাজীপুর সরকারি মহিলা কলেজে আবেদন করতে ইচ্ছুক। আমার এ কলেজে চান্স পাবার সম্ভাবনা কতটুকু একটু জানাবেন ভাইয়া?

    1. admin

      তুমি যেকানো একটা কলেজে আবেদন পারবে। আর তুমার পয়েন্ট অনুযায়ি তুমি উপজেলা কেন্দ্রিক কোনো কলেজে আবেদন করলে ৯৯% চান্স পাবে। তারপরও শহরের কোনো কলেজে আবেদন করতে চাইলে গাজীপুর সরকারি মহিলা কলেজে আবেদন করবে। ৯৫% সম্ভাবনা আছে। আরেকটি বিষয় তুমার যদি বেশি ইচ্ছা থাকে শহরে পড়ার, তাহলে ঐ মহিলা কলেজে আবেদন করিও। পরে না হলেও রিলিজ স্লিপের মাধ্যমে অন্য ৫ কলেজে আবার আবেদন করতে পারবে।

  2. Abid

    যদি কারো কমার্স থেকে SSC রেজাল্ট ২.৫০ এর কম হয় আর HSC রেজাল্ট ৪.২৯ হয়, সে কি আবেদন করতে পারবে না?

    1. admin

      দুঃখিত! না

  3. sohel rana

    ভাইয়া আমি এসএসসি ২০১৮ বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৩.৯৪ এবং এইসএসসি ২০২০ বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৪.২৫ পেয়েছি। মোট ৮.১৯. আমি এই রেজাল্ট নিয়ে বিজ্ঞান বিভাগে রংপুর সরকারি কলেজে চান্স পাওয়ার কতটুকু আশা করতে পারি? একটু বলবেন প্লিজ।

    1. admin

      তুমি ৯৫% আশা রাখতে পারো। যে বিষয়ে এইচএসসিতে ভালো পয়েন্ট পেয়েছো সে বিষয় প্রথমে দিলে চান্স হওয়ার সম্ভাবনা আরও বেশি থাকবে।

  4. S.M.Nasir Uddin

    আমার ছোট ভাই ২০১৭ সালে (বিজ্ঞান) হতে ৩.৫৫ পেয়ে এসএসসি ও ২০২০ সালে (মানবিক) হতে ৩.৫০ পেয়ে এইচএসসি পাশ করেছে। সে কি খুলনা জেলার সরকারি সুন্দরবন আদর্শ কলেজ বা হাজী মহসিন কলেজে বি.এ ইংলিশ অনার্সে ভর্তি হতে পারবে?

    1. admin

      উভয় কলেজ-ই ভালো মানের আবার শহরে অবস্থিত। তাই উক্ত কলেজে ৭.০৫ পয়েন্ট নিয়ে চান্স পাওয়ার সম্ভাবনা ৫০% মাত্র। তাই উপজেলা কেন্দ্রিক কোনো কলেজে আবেদন করুন।

  5. Shakib

    কমার্সের স্টুডেন্ট SSC ২.৯৪ আর HSC ৩.৮৯ পায় তাহলে সে কি গ্রুপ পরিবর্তন করে মানবিকের বিষয়ে আবেদন করতে পারবে?

    1. admin

      অবশ্যই পারবে।

  6. abdul alim

    vai ami 2017 sale SSC te 5.00 O 2020 sale HSC te golden a+ peyesi. ami ki tularam collage e chance pabo? plz bolben

    1. admin

      হ্যা, অবশ্যই তুমার চান্স পাওয়ার সম্ভাবনা ৯৯% আছে। তবে এইচএসসি তে যে বিষয়ে তুমার পয়েন্ট ভালো সে বিষয় চয়েজ দিবে, তাহলে চান্স পাওয়ার সম্ভাবনা আরও বৃদ্ধি পাবে।

  7. Bappy

    Vaiya! Ami SSC (Electicel) 4.25 & HSC (Accouting) 4.10 Ami Ki National University te Chance Pabo Vaiya? R Abedhon Krte Parbo?

    1. admin

      তুমার পয়েন্ট অনুযায়ি তুমি অবশ্যই চান্স পাবে। তবে এসএসসি পাশ ২০১৭ সালের আগে হলে, আবেদন করতে পারবে না।

  8. Tasnim

    আমার এসএসসি রেজাল্ট ৪.০০ এবং এইচএসসি রেজাল্ট ৪.০৮ (সাইন্স). আমি কি লালমাটিয়ার মহিলা কলেজে লাইব্রেরি সাইন্স এ আবেদন করলে চান্স পাব?

    1. admin

      হ্যা, ৯৫% সম্ভাবনা আছে।

  9. আবদুর রাজ্জাক

    ভাইয়া! আমি 2016 সালে এসএসসি পরীক্ষাতে 4.75 এবং 2018 সালে এইচএসসিতে 3.71 পেয়েছি। আমার কি 2021 সালে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হওয়ার সুযোগ রয়েছে?

  10. আবদুর রাজ্জাক

    ভাইয়া! আমি 2016 সালে এসএসসি পরীক্ষাতে 4.75 এবং 2018 সালে এইচএসসিতে 3.71 পেয়েছি। আমার কি 2021 সালে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হওয়ার সুযোগ রয়েছে?

    1. admin

      হ্যা, অবশ্যই ভর্তি হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

  11. Eva Rahman

    Amr 2017 te SSC point 3.95 r 2019 e hSC point 3.67. to ami Gaibandha government College e chance pabo?

    1. admin

      ৭.৬২ পয়েন্ট নিয়ে উক্ত কলেজে চান্স পাওয়ার সম্ভাবনা 60%

Leave a Reply