ডিগ্রি উপবৃত্তি ২০২২ | ফাজিল উপবৃত্তি ২০২২ | বিস্তারিত

ডিগ্রি উপবৃত্তি ২০২২ | ফাজিল উপবৃত্তি ২০২২ : স্নাতক (পাস) পর্যায়ের ডিগ্রি ও ফাজিল শ্রেণির দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ২০১২-১৩ অর্থবছর থেকে “প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট” কর্তৃক উপবৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। সে লক্ষে এবার ২০২২ সালের স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। নিম্নে সকল তথ্যবলি দেখুন :

ডিগ্রি (স্নাতক) উপবৃত্তি ২০২২ | ফাজিল উপবৃত্তি তথ্য ২০২২

সুপ্রিয় বন্ধুরা! আপনারা এডু মাসাইল (Edu Masail) ওয়েবসাইটের এই পোষ্ট হতে জানতে পারবেন যে, প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক উপবৃত্তির জন্য কারা আবেদন করতে পারবে, শিক্ষার্থীদের করণীয় ও শর্তাবলী কি কি এবং উপবৃত্তি পেতে আবেদন করার বিস্তারিত তথ্যবলী। যাইহোক, প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট ২০২২ কর্তৃক স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য নিম্নে তুলে ধরা হলোঃ-

উপবৃত্তির জন্য যারা আবেদন করতে পারবে ২০২২

শুধুমাত্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক (পাস) / ডিগ্রি / ফাজিল পাস শ্রেণির শিক্ষার্থীরা এই উপবৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। তবে সকল সেশনের শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে না।

শুধুমাত্র ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের ৩য় বর্ষ, ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষের ২য় বর্ষ এবং ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী উক্ত উপবৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবে।

ডিগ্রি উপবৃত্তিটাইমলাইন ২০২২
আবেদন শুরু০৯ জানুয়ারি ২০২২ হতে
আবেদন শেষ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২২ পর্যন্ত
তালিকা প্রেরণ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ পর্যন্ত

আরও দেখুন : ফাজিল বৃত্তি রেজাল্ট ২০২১

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক উপবৃত্তির আবেদন নিয়ম ২০২২

স্নাতক (পাস) পর্যায়ের ডিগ্রি ও ফাজিল শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য প্রথমে নিম্নে দেওয়া আবেদন লিংক থেকে অনলাইনে আবেদন বা নিবন্ধন করতে হবে। অনলাইনে আবেদন / নিবন্ধন করার পদ্ধতি দেখুন এখান থেকে অথবা নিম্নের ভিডিওতে দেখুন বিস্তারিত–

আবেদন করার লিংক : উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য শিক্ষার্থীকে এই লিংকে প্রবেশ করে অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে।

নিবন্ধনের জন্য প্রয়ােজনীয় নির্দেশনা বর্ণিত ওয়েবসাইটে ব্যবহার নির্দেশিকায় পাওয়া যাবে। উক্ত সফটওয়্যারে তথ্য এন্ট্রির জন্য সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের আলাদা আলাদা User ID ও password শিঘ্রই প্রেরণ করা হবে। ব্যবহার নির্দেশিকার শর্তাবলি অনুসরণপূর্বক আগামী ০৯/০১/২০২২ থেকে ১০/০২/২০২২ তারিখ পর্যন্ত সিস্টেম ব্যবহার করে অনলাইনে শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবে। 

উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য নির্বাচিত শিক্ষার্থীর অভিভাবকের বার্ষিক আয় মোট ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) টাকার কম হতে হবে। সামগ্রীক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে আগামী ২৮/০২/২০২২ তারিখের মধ্যে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকা সিস্টেম ব্যবহার করে অনলাইনে প্রেরণ করার জন্য অনুরােধ করা হলাে। উল্লেখ্য, নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকার কোন হার্ড কপি প্রেরণের প্রয়ােজনীয়তা নাই।

ডিগ্রি উপবৃত্তি | ফাজিল উপবৃত্তি ২০২২ সংক্রান্ত কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নোত্তর

01. ২০২২ সালের ডিগ্রি উপবৃত্তির জন্য কারা আবেদন করতে পারবে?
      উত্তরঃ শুধুমাত্র স্নাতক ডিগ্রি বা ফাজিল পাস পর্যায়ের ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ,  ২০১৮-২০১৯ ২য় বর্ষ এবং ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবে।

02. নিবন্ধন করার সময় রেজিঃ ও রোল নম্বর সঠিক থাকা সত্তেও ভুল দেখালে কি করবো?
উত্তরঃ দুইটি কাজ করা যাবে। রেজিঃ ও রোল এবং মোবাইল নম্বর অবশ্যই ইংরেজি অক্ষরে দিতে হবে। এরপরও ভুল দেখালে কিছুক্ষণ পর আবার চেষ্টা করুন। কেননা সার্ভাররের সমস্যার কারনে ভুল দেখাতে পারে।

03. নিবন্ধন করতে পাসওয়ার্ড কি দিবো?
উত্তরঃ নিবন্ধন করার সময় আপনার ইচ্ছামতো যেকোনো 6 digit বা সংখ্যা / বর্ণ দিয়ে পাসওয়ার্ড সেট করতে পারবেন। উল্লেখ্য, পরবর্তীতে এই পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনাকে বাকি কাজগুলো সম্পন্ন করতে হবে।

04. নিবন্ধন করার পর পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে কি করবো ও উপায় কি?
      উত্তরঃ নিবন্ধন করার পর পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে আপনার স্নাতক রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও মোবাইল নম্বর দিয়ে পাসওয়ার্ড পুনরুদ্ধার করতে পারবেন। এ জন্য “পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?” অপশনে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্যদি দিয়ে পাসওয়ার্ড পুনরুদ্ধার করা যাবে।

05. ডিগ্রি ২০২০-২০২১ সেশনের শিক্ষার্থী এবার আবেদন করতে পারবে?
      উত্তরঃ না, ২০২০-২০২১ সেশনের ডিগ্রি/ফাজিল শিক্ষার্থী এবার আবেদন করতে পারবেন না। বরং আগামী বছর আবেদন করতে পারবেন।

06. ডিগ্রি প্রাইভেট কোর্সে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে?
      উত্তরঃ হ্যা, ডিগ্রি / ফাজিল প্রাইভেট কোর্সে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে।

07. অর্নাসের শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবে?
      উত্তরঃ  না, পারবেন না। উপবৃত্তি শুধু ডিগ্রি অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের দেওয়া হয়। অর্নাস শেষ করার পর আপনাদের রেজাল্টের উপর ভিত্তি করে মেধাবৃত্তি দেওয়া হবে।

08. এক, দুই বা ততোধিক সাবজেক্ট F থাকলে কি আবেদন করা যাবে?
      উত্তরঃ হ্যা, আবেদন করা যাবে।

09. রেজাল্টে Not promoted আসলে উপবৃত্তি পাওয়া যাবে?
      উত্তরঃ ১ম, ২য়, ৩য় বর্ষের যেকোনো বর্ষে পুনঃভর্তি হলে উক্ত শিক্ষার্থী অনিয়মিত হিসাবে বিবেচিত হবে এবং উপবৃত্তি প্রাপ্তির ক্ষেত্রে বিবেচিত হবে না। সুতরাং Not promoted প্রাপ্ত কোনো শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে না।

10. আবেদনের সময় ছবি আপলোড হয় না, সমাধান কি?
      উত্তরঃ ছবিতা ৩০০ বাই ৩০০ পিক্সেল এবং ১০০ kb এর কম হতে হবে। তাই ছবি আপলোড দেওয়ার আগে ক্রপ করে পরিমাণ মত ছোট করে নিন। মোবাইল দিয়ে মাপমত ছবি রিসাইজ করতে এই পোষ্টের নিচে ছবি রিসাইজ করার নিয়ম দেখুন


11. অনলাইন আবেদন করতে গিয়ে “Error! Your Institution is not Register for PMEAT scholarship program!” লিখা আসছে। নিবন্ধন হচ্ছে না সেক্ষেত্রে কি করণীয়?
      উত্তর : এটা সার্ভার সমস্যা বা কলেজ/মাদ্রাসা এখনও ডাটা এন্ট্রি করেনি। তাই কয়েকদিন পর আবেদন করার চেষ্টা  করুন। যেহেতু যথেষ্ট সময় আছে। কেননা আবেদনের শেষ সময় ১৫ সেপ্টেম্বর।

12. উপবৃত্তির জন্য কি (অনলাইন/সেভিংস) ব্যাংক একাউন্ট লাগবে?
      উত্তর : অনলাইনে আবেদন করতে অবশ্যই যেকোনো ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার দিতে হবে। তবে (অনলাইন/সেভিংস) ব্যাংক একাউন্টের পরিবর্তে মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট খুলে নেওয়া যাবে বা দেওয়া যাবে।

13. মোবাইল ব্যাংক একাউন্ট হলে হবে এবং কি কি মোবাইল ব্যাংক একাউন্ট নম্বর দেওয়া যাবে?
      উত্তর : হ্যা, মোবাইল ব্যাংক একাউন্ট হলে হবে। আর বিকাশ ও রকেট এর মোবাইল ব্যাংক একাউন্ট নম্বর দেওয়া যাবে।

14. যারা পূর্বে আবেদন করে উপবৃত্তির অর্থ পেয়েছেন, তাদের কি আবার আবেদন করতে হবে?
      উত্তর : হ্যা, ইতিপূর্বে ডিগ্রি (পাস) / ফাজিল (পাস) পর্যায়ের সেসব শিক্ষার্থী উপবৃত্তির অর্থ পেয়েছেন, তাদেরকে আবার পুনরায় অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

16. আবেদনের সময় জমির পরিমাণ ও বার্ষিক আয় কি দিবো?
      উত্তর : উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য অভিভাবক / পিতামাতার মোট জমির পরিমাণ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বসবাসকারী জমির ০.০৫ শতাংশ, পৌরসভা এলাকায় ০.২০ শতাংশ এবং অন্যান্য এলাকায় ০.৭৫ শতাংশের কম থাকতে হবে এবং অভিভাবকের বার্ষিক আয় মোট ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) টাকার কম হতে হবে।

17. আবেদনের সময় বার্ষিক আয় কি দিবো?
      উত্তর : উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য অভিভাবকের বার্ষিক আয় মোট ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) টাকার কম হতে হবে।

18. আবেদন সম্পন্ন করার পর সংশোধন করা যাবে?
      উত্তর : না, আবেদন সম্পন্ন করার পর সংশোধন করা যাবে না। তাই, সতর্কতার সহিত আবেদন ফরম পুরন করবেন।

19. অনলাইনে আবেদন করতে কি কলেজে/মাদ্রাসা যেতে হবে বা কলেজ/মাদ্রাসা থেকে করতে হবে?
      উত্তর : না, আপনি নিজে বা যেকোনো কম্পিউটার দোকান থেকে আবেদন করতে পারবেন। কলেজ/মাদ্রাসা নোটিশ দিলে প্রিন্ট কপি জমা দিবেন।

20. অনলাইনে আবেদন করার পর কি কলেজে/মাদ্রাসায় জমা দিতে হবে?
      উত্তর : অনলাইনে নিবন্ধন ও আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পর প্রিন্ট কপি, আর কলেজ/মাদ্রাসা কর্তৃক নির্দেশিত কাগজপত্র (যেমনঃ পাসপোর্ট সাইজের ছবি, রেজিষ্ট্রেশন কার্ডের ফটোকপি) জমা দিতে হবে। কলেজ নোটিশে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

21. আবেদনের সময় কোনো টাকা লাগবে?
      উত্তর : না, অনলাইনে আবেদন করতে কোনো ফি/টাকা লাগবে না।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক উপবৃত্তির জন্য শিক্ষার্থী নির্বাচনের নিয়মাবলী

(ক) প্রাথমিক নির্বাচন: (১) প্রথমত, সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তিকৃত মোট শিক্ষার্থীর মধ্যে হতে উপরোক্ত শর্তাবলির আলোকে শিক্ষার্থীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মোট আবেদিত ছাত্র এবং ছাত্রীর পৃথক তালিকা প্রস্তুত করতে হবে। (২) প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ছাত্রী তালিকাকে ১০০% ধরে তার মধ্যে হতে ৭৫% ছাত্রীকে উপবৃত্তির জন্য নির্বাচন করতে হবে। (৩) একইভাবে, প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ছাত্র তালিকাকে ১০০% ধরে তার মধ্যে হতে ২৫% ছাত্রকে উপবৃত্তির জন্য নির্বাচন করতে হবে।

(খ) চূড়ান্ত নির্বাচন: (১) শিক্ষার্থী নির্বাচনী কমিটি উপবৃত্তির জন্য শিক্ষার্থী নির্বাচন চূড়ান্ত করবে এবং নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের নাম, শ্রেণি রোল নম্বর ও কলেজের নাম চূড়ান্ত করবেন। (২) নির্বাচনি কমিটি উপবৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীর তালিকা চূড়ান্ত্ভাবে প্রস্ততকালে একটি রেজুলেশন করবেন। উক্ত রেজুলেশন এর একটি কপিসহ উপবৃত্তির জন্য চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট অফিসে প্রেরণ করবেন। উল্লেখ্য যে, রেজুলেশন এর কপি ব্যতিত নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকা গ্রহণযোগ্য হবে না।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক স্নাতক (পাস) শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান বিজ্ঞপ্তি ২০২২
ডিগ্রি উপবৃত্তি ২০২২ | ফাজিল উপবৃত্তি ২০২২
ডিগ্রি উপবৃত্তি ২০২২ | ফাজিল উপবৃত্তি ২০২২

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক উপবৃত্তির জন্য শর্তাবলী

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী, এতিম, অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান, নদীভাঙ্গন কবলিত পরিবারের সন্তান এবং দুস্থ পরিবারের সন্তানগণ উপবৃত্তি প্রাপ্তির ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবে।

তৃতীয় লিঙ্গধারী সকল শিক্ষার্থী উপবৃত্তি প্রাপ্য হবে এবং এদের তালিকা পৃথক ভাবে প্রেরণ করতে হবে।

উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য নির্বাচিত শিক্ষার্থীর অভিভাবকের বার্ষিক আয় মোট ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) টাকার কম হতে হবে।

অভিভাবক/পিতামাতার মোট জমির পরিমাণ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বসবাসকারী ০.০৫ শতাংশ, পৌরসভা এলাকায় ০.২০ শতাংশ এবং অন্যান্য এলাকায় ০.৭৫ শতাংশের কম থাকতে হবে।

সংশ্লিষ্ট এলাকার সিটি কর্পোরেশন/ পৌরসভার মেয়র/ কাউন্সিলর/ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/ প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা/ সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান প্রদত্ত আয় ও জমির পরিমাণ সম্পর্কিত সনদপত্র যুক্ত করতে হবে।

উপবৃত্তিপ্রাপ্তির জন্য শিক্ষার্থীকে স্নাতক (পাস)/সমমান (ফাজিল) পর্যায়ের নিয়মিত শিক্ষার্থী হতে হবে। ২য় বর্ষ এবং ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে স্নাতক (পাস)/ সমমান (ফাজিল) পর্যায়ের অভ্যন্তরীণ বা নির্বাচনী পরীক্ষায় নিয়মিত শিক্ষার্থী হিসাবে উত্তীর্ণ হতে হবে।

স্নাতক (পাস)/সমমান (ফাজিল) পর্যায়ের প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়ার পর বিরতিহীনভাবে ২য় বর্ষ ও ৩য় বর্ষে অধ্যয়ন করতে হবে এবং স্নাতক(পাস)/সমমান পর্যায়ের পরীক্ষায় অংশ্রগ্রহণ করতে হবে। উল্লেখ্য যে, ১ম, ২য়, ৩য় বর্ষের যেকোনো বর্ষে পুনঃভর্তি হলে উক্ত শিক্ষার্থী অনিয়মিত হিসাবে বিবেচিত হবে এবং উপবৃত্তিপ্রাপ্তির ক্ষেত্রে বিবেচিত হবে না।

নিয়মিত শিক্ষার্থী হিসেবে শ্রেণিকক্ষে (ক্লাস) কমপক্ষে ৭৫% উপস্থিতি থাকতে হবে। এক্ষেত্রে আবশ্যিক বিষয় হিসেবে (বাংলা/ইংরেজি) কাউন্ট করা যেতে পারে।

ছাত্র-ছাত্রীর ভর্তিকৃত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের হালনাগাদ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়/ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বীকৃতি এবং পাঠদানের অনুমতি থাকতে হবে।

66 thoughts on “ডিগ্রি উপবৃত্তি ২০২২ | ফাজিল উপবৃত্তি ২০২২ | বিস্তারিত”

  1. Rokonuzzaman

    আমার বিকাশ একাউন্টে আমার মায়ের প্রতিবন্ধি ভাতা টাকা এসেছিল।এজন্য সমাজসেবা মন্ত্রণালয় কর্তৃক ১ মাসের জন্য ক্যাশআউট ব্যতিত সকল লেনদেন বন্ধ করে দিয়েছিল। এমতাবস্থায় সরকার কর্তৃক উপবৃত্তির টাকা ছাড়া হয়। অথচ আমার একাউন্টে টাকা আসেনি। এখন কি করব?

  2. সাজেদা জান্নাত

    ফাজিল ৩য় বর্ষের উপবৃত্তির টাকা এখনো পাইনি। করণীয় কি? আমার রকেট একাউন্টে ২টা একাউন্ট কিন্তু এর আগের বার টাকা এসেছিল.

    1. ফাজিল উপবৃত্তি তথা প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক যে উপবৃত্তি দেওয়া হয় সেটা একবারই দেওয়া হয়।

      1. সাজেদা জান্নাত

        কিন্তু আমার মাদ্রাসা থেকে পূনরায় আবেদন করতে বলা হয়েছিলো আমার সাথে গতবার যারা পেয়েছিল তারা ও পেয়েছে

        1. হ্যা, পূনরায় আবার আবেদন করতে হবে। নতুবা পাবে না। আপনার আবেদন হয়ত হয় নাই। অথবা যোগ্য নন অথবা আবেদন করতে কোনো সমস্যা হইছে

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!