ডিগ্রি ভর্তি ২০২৩ | জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রি ভর্তি ২০২৩

ডিগ্রি ভর্তি ২০২২-২০২৩ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রি ভর্তি ২০২২-২০২৩ । জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০২২-২০২৩ শিক্ষাবর্ষে ডিগ্রি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ৩১ জুলাই ২০২৩ তারিখ প্রকাশিত হয়েছে। যাদের পয়েন্ট কম কিংবা যারা অনার্সে আবেদন করতেই পারেননি তারা ডিগ্রিতে আবেদন করতে পারবেন। তো চলুন নিম্নে বিস্তারিত জেনে নেই :

আপডেট

২০২২-২০২৩ শিক্ষাবর্ষে ডিগ্রি ভর্তির প্রাথমিক আবেদনের সময় ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে।

ডিগ্রি ভর্তিরসময় ২০২৩
আবেদন শুরু০২ আগস্ট ২০২৩ হতে
আবেদন চলবে (সময় বর্ধিত)২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত
১ম মেধাতালিকা দেখুনএখান থেকে
ডিগ্রি ভর্তির নিয়ম দেখুনএখান থেকে
ক্লাস শুরু২৫ অক্টোবর ২০২৩ হতে

আমাদের ফেসবুক গ্রুপে যুক্ত হোন : National University Helpline

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রি ভর্তির নিয়ম

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ডিগ্রিতে ভর্তি হতে হলে সর্বপ্রথম একজন যোগ্য প্রার্থীকে অবশ্যই নির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে প্রাথমিক আবেদন করতে হবে। (বি.দ্র. প্রাথমিক আবেদন না করলে পরবর্তীতে এ বছর আর ডিগ্রিতে ভর্তি হতে পারবে না)

প্রাথমিক আবেদনের পর ১ম মেধাতালিকার ফলাফল প্রকাশ হবে। ১ম মেধাতালিকায় যারা উত্তীর্ণ হবে তাদেরকে অবশ্যই নির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে চূড়ান্ত ভর্তির ফরম পূরণ করতে হবে।

ভর্তি ফরম পূরণ করা শেষ হলে আলাদাভাবে ভর্তি ফি প্রদান করতে হবে। ফি প্রদান করার পর উক্ত ফরমের উপরে RB number এবং সাক্ষরের জায়গায় সাক্ষর দিয়ে সংশ্লিষ্ট কলেজে উক্ত ফরম সহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

এছাড়াও ডিগ্রি ভর্তি সংক্রান্ত খুটিনাটি আরও কাজ ও তথ্য জানার বাকি আছে। স্ক্রল করে পুরো পোস্টটি পড়ুন।

ডিগ্রি ভর্তি যোগ্যতা ২০২৩

বাংলাদেশে স্বীকৃত যে কোনো শিক্ষা বোর্ড বা উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১৮/২০১৯/২০২০ সালের SSC বা সমমান এবং ২০২০/২০২১/২০২২/ সালের HSC বা সমমান উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয় সহ কমপক্ষে ২.০০ পয়েন্ট প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা ২০২৩ সালের ডিগ্রী (পাস) ১ম বর্ষে ভর্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন করতে পারবে।

শ্রেণিসনন্যূনতম যোগ্যতা
SSC২০১৮-২০২০GPA 2.00
HSC২০২০-২০২২GPA 2.00

আবেদনকারীকে ২০১৮/২০১৯/২০২০ সালের O-level পরীক্ষায় কমপক্ষে ৩টি বিষয়ে B গ্রেডসহ অন্তত ০৪টি বিষয়ে উত্তীর্ণ এবং ২০২০/২০২১/২০২২ সালের A-level পরীক্ষায় ০১টি বিষয়ে B গ্রেডসহ অন্তত ০২টি বিষয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে এক্ষেত্রে আবেদনকারীকে ভর্তি নির্দেশিকার অন্যান্য সকল শর্ত পূরণ করতে হবে।

বিদেশী সার্টিফিকেটধারীর অর্জিত SSC ও HSC পর্যায়ের নম্বরপত্র বাংলাদেশে স্বীকৃত কোনো শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক সমতা নিরুপণ করা হলে, তারাও প্রাথমিক আবেদন করতে পারবে। এক্ষেত্রে আবেদনকারীকে ভর্তি নির্দেশিকার সকল শর্ত পূরণ করতে হবে। তবে এ সকল প্রার্থীদের ডীন, স্নাতকপূর্ব শিক্ষাবিষয়ক স্কুল, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে সরাসরি যোগাযোগ করতে হবে।

যেকোনো সালে SSC ও HSC পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ডিগ্রি ভর্তির নিয়ম দেখুন

ডিগ্রী ভর্তি প্রক্রিয়া

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্নাতক (পাস) / ডিগ্রি ১ম বর্ষে ভর্তি হতে হলে, শিক্ষার্থীকে প্রথমে ভর্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন করতে হবে। প্রাথমিক আবেদনে শিক্ষার্থী কোনো মেধাতালিকায় নির্বাচিত হলে, সে ডিগ্রি ১ম বর্ষের চূড়ান্ত ভর্তির ফরম তুলতে পারবে।

  1. ভর্তি পরীক্ষা ব্যতীত এসএসসি ও এইচএসসি ফলাফলের ভিত্তিতে ছাত্রছাত্রী ডিগ্রিতে ভর্তি করানো হবে। প্রতিটি কলেজের জন্য আলাদাভাবে মেধাতালিকা তৈরী করে পরীক্ষার্থীদের পছন্দক্রম অনুযায়ী ডিগ্রি (পাস) শ্রেণির বিষয় বরাদ্ধ দেয়া হবে।
  2. একই প্রতিষ্ঠান/কলেজে একই বিষয়ে দুই বা ততোধিক আবেদনকারীর প্রাপ্ত ফলাফল একই হলে, সেক্ষেত্রে আবেদনকারীর পর্যায়ক্রমে চতুর্থ বিষয়সহ SSC ও HSC পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ যথাক্রমে ৪০% ও ৬০% এবং প্রয়োজন হলে SSC ও HSC পরীক্ষার মোট প্রাপ্ত নম্বরের যথাক্রমে ৪০% ও ৬০% এর ভিত্তিতে মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে।
  3. এরপরেও যদি দুই বা ততোধিক আবেদনকারীর প্রাপ্ত ফলাফল একই হয়, তা হলে যার বয়স কম হবে তাকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।

আবেদন ফি ও কলেজ চয়েজ

আবেদন ফি ২৫০/- টাকা এবং প্রত্যেক আবেদনকারী শুধুমাত্র ১ টি কলেজে আবেদন করতে পারবে। বি.দ্র.  আবেদন ফরমে কোনো ভুল থাকলে, আবেদনকারী তা Cancel করে নতুন করে আবেদন করতে পারবে। তবে ১ বারের বেশি Cancel করা যাবেনা। আর কলেজ কর্তৃক আবেদন ফরমটি নিশ্চিত হলে, তা আর Cancel করা যাবে না।

ডিগ্রি ভর্তির প্রাথমিক আবেদন নিয়ম

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্নাতক (পাস) / ডিগ্রী ১ম বর্ষের ভর্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন সাধারণত পাচটি ধাপে সম্পন্ন করতে হয় এবং তা শুধু অনলাইনেই সম্পন্ন করতে হয়। তার আগে আপনাকে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি সংগ্রহ করে আবেদন করতে লাগবেন। নিম্নে প্রাথমিক আবেদন করতে যা যা লাগবে তা সহ প্রাথমিক আবেদন করার পদ্ধতি দেয়া হলো : 

  1. SSC বা সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর
  2. HSC বা সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর
  3. এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি (অবশ্য তা মোবাইলের মধ্যে থাকতে হবে)
  4. একটি ইমেইল এড্রেস ও মোবাইল নম্বর (বাধ্যতামূলক)

প্রথম ধাপ : ডিগ্রি ১ম বর্ষের ভর্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন আবেদন করতে প্রথমে এখানে ক্লিক করুন । এবার SSC ও HSC পরীক্ষার রোল নম্বর, রেজিঃ নম্বর, বোর্ড ও পাসের সাল দিয়ে Next বাটনে ক্লিক করবে।

তবে যেসব শিক্ষার্থী বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এইচএসসি বা এসএসসি পাশ করেছে, তারা যেভাবে আবেদন করবে তার নিয়ম হচ্ছে, তাদের যে স্টূডেন্ট আইডি নম্বর আছে ঐটাই রোল নম্বর। তাহলে রেজিস্ট্রেশন নম্বর কোনটা? উত্তর হচ্ছে তাদের ঐ স্টূডেন্ট আইডি নম্বরের শেষ ৬ ডিজিট-ই হচ্ছে রেজিস্ট্রেশন নম্বর। তবে ঐ ৬ ডিজিট ডেস (-) ছাড়া বসাতে হবে।

দ্বিতীয় ধাপ : এই ধাপে আবেদনকারী তার SSC ও HSC পরীক্ষার ফলাফলসহ সব তথ্য দেখতে পাবে এবং নিচের দিকে গেলে আবেদনকারীর নামসহ তার পিতা-মাতার নাম, জন্মতারিখ এবং লিঙ্গ অপশন দেয়া থাকবে, সেই অপশন ভাল করে দেখবে যে কি দেয়া আছে। (এখানে কোনো ভুল হলে অবশ্যই সঠিক লিঙ্গ দিবেন) তারপর Next বাটনে ক্লিক করুন।

তৃতীয় ধাপ : তারপর যে পেজ আসবে সে পেজের একেবারে বাম দিকের প্রথম কলামে দেখতে পাবেন Eligible Subject Listদেয়া আছে। এই তালিকা থেকে আপনি জানতে পারবেন যে, আপনি কি কি কোর্সে ডিগ্রিতে পড়তে পারবেন। তারপর দ্বিতীয় কলাম থেকে আপনাকে কলেজ নির্বাচন করতে হবে (উল্লেখ্য যে, শুধুমাত্র একটি কলেজে আবেদন করতে পারবেন)

কলেজ সিলেক্ট করতে আপনাকে প্রথমে বিভাগ নির্বাচন করতে হবে। তারপর জেলা নির্বাচন করতে হবে (অবশ্য আপনি যে কলেজ চয়েজ দিতে চান সেই কলেজ যে বিভাগ ও জেলায় অবস্থিত, আপনাকে সেসব বিভাগ ও জেলার নাম দিতে হবে) এবং সব শেষে নিচের বক্স থেকে কাঙ্ক্ষিত বা ভর্তিচ্ছু কলেজের নাম নির্বাচন করতে হবে। এরপর দ্বিতীয় কলামে আপনি Subject choice করার অপশন পাবেন এবং কোন বিষয়ে কতটি সিট আছে, তাও ডান পাশে দেখতে পাবেন। এখন আপনি যে কোর্সটি প্রথম চয়েজ দিবেন, সেটাতে প্রথমে ক্লিক করুন। তারপর দুই নম্বরে যে কোর্স চয়েজ দিবেন সেটাতে ক্লিক করুন। এভাবে একের পর এক কোর্স চয়েজ করতে পারবেন। (উল্লেখ্য কোর্স চয়েজ খুভ সাবধানে দিবেন) এবার Next বাটনে ক্লিক করুন।

চথুর্থ ধাপ : এখন যে পেজ আসবে তাতে কোটা দেয়া থাকবে। আপনার যদি কোনো কোটা থাকে তাহলে Yes অপশনে ক্লিক করে কাঙ্ক্ষিত কোটা সিলেক্ট করূন। আর যদি কোনো কোটা না থাকে তাহলে No অপশনে ক্লিক করুন। তারপর Next বাটনে ক্লিক করুন।

পঞ্চম ধাপ : এই পর্যায়ে আবেদনকারীর একটি ছবি, একটি মোবাইল নম্বর এবং একটি ই-মেইল প্রদান করতে হবে। (তবে ছবিটি  ১৫০ পিক্সেল উচ্চতা, ১২০ পিক্সেল প্রস্থ এবং সাইজ ৫০ কেবি সহ png ফরম্যাটে হতে হবে) মোবাইল দিয়ে সঠিক মাপের ছবি বানাতে না পারলে এই আর্টিকেল দেখে আইডিয়া নিয়ে নাও!

তারপর Preview application অপশনে ক্লিক করে দেখুন আপনার দেয়া তথ্য সঠিক আছে কিনা। এবার আপনি নিশ্চিত হলে নিচে থাকা Submit Application অপশনে ক্লিক করুন। তারপর pdf আকারে একটি ফাইল (ফরম) আসবে সেটা ডানলোড করে প্রিন্ট করে বের করুন। ফরমটি বের করার পর আবেদনকারী ফরমটিতে স্টুডেন্ট সিগন্যাচারের জায়গায় স্বাক্ষর দিয়ে আবেদন ফি বাবদ ২৫০ টাকা সহ নিম্নোক্ত কাগজপত্র ভর্তিচ্ছু জমা দিতে হবে।

আবেদন ফি যেভাবে জমা দিবেন

যেহেতু জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় জেনারেল কোনো পদ্ধতি রাখেনি সেহেতু প্রত্যেক কলেজের আবেদন ফি দেওয়ার পদ্ধতি বা মাধ্যম ভিন্ন হতে পারে। কোনো কলেজ বিকাশে, কোনো কলেজ রকেট বা শিওর ক্যাশে টাকা জমা নেয়। তবে কোন কলেজ কিসের মাধ্যমে আবেদন ফি জমা নিবে তা সংশ্লিষ্ট কলেজের নোটিশ বোর্ডে দেখতে পারবে এবং কোড বা নাম্বার দেওয়া থাকবে, যার ফলে আপনি চাইলে নিজে নিজেও আবেদন ফি পরিশোধ করতে পারবেন। যেহেতু সব কলেজের নিয়ম এক নয়, তাই ফি জমা দেওয়ার নিয়ম দেওয়া হলো না। তবে কলেজের নিকটস্থ কোনো কম্পিউটার ঘরে গেলে তারা করে দিবে।

বিকাশের মাধ্যমে টাকা জমা দেয়ার নিয়ম

১ম ধাপ : বিকাশ এপ অপেন করে পে বিল অপশনে ক্লিক করুন। তারপর প্রাপক অপশন থেকে আপনার কলেজের নাম অথবা বিলার আইডি (biller id) নম্বর দিন (এখানে নাম নাকি নম্বর দিতে হবে তা সংশ্লিষ্ট কলজের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি থেকে জানতে পারবেন) এবং বিলার আইডি আসলে সেলেক্ট করুন।

২য় ধাপ : এবার student id এর জায়গায় আবেদন ফরমে থাকা বা মোবাইলে আসা ভর্তি রোল (Admission Roll) টা দিন। বি.দ্র. ম্যানুয়ালি মাস যা আসবে তাই থাকবে চেঞ্জ করার দরকার নেই। এবার next ধাপে যান।

৩য় ধাপ : এবার আপনাকে কত টাকা পে করতে হবে তা সংক্রান্ত একটা মেনু আসবে। এখানে কিছুই করতে হবে না। এবার next ধাপে যান।

৪র্থ ধাপ : এবার আপনাকে আপনার বিকাশের পিন নম্বর দিতে হবে। পিন দেওয়ার পর next এ যান এবং ট্যাপ করে চেপে ধরুন। নেট সংযোগ ভালো থাকলে সাথে সাথে পেমেন্ট হয়ে যাবে।

আবেদন ফরমের সাথে যা জমা দিতে হবে

অনলাইনে প্রাথমিক আবেদন করা শেষ হলে আবেদনকারীকে প্রথমে প্রিন্ট করা প্রাথমিক আবেদন ফরমটির নির্ধারিত স্থানে স্বাক্ষর করতে হবে। তারপর কোনো কম্পিউটার ঘর বা নিজের মোবাইল ব্যাংকিং থেকে আবেদন ফি পরিশোধ করে নিম্নোক্ত কগজাদি কলেজে জমা দিয়ে প্রাথমিক আবেদন সম্পূর্ণ করতে হবে।

  1. প্রার্থীর SSC ও HSC / সমমান পরিক্ষার নম্বরপত্র/মার্কশীট এর ফটোকপি এবং
  2. প্রার্থীর SSC ও HSC / সমমান পরিক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ডের ফটোকপি কপি।

আবেদন ফরম জমা দেওয়ার কয়েক দিনের মধ্যে আবেদনকারীকে তার মোবাইল নম্বরে ফলাফল জানিয়ে দেয়া হবে। আবেদনকারী ভর্তির জন্য নির্বাচিত হলে, সংশ্লিষ্ট কলেজ আবেদন কারীর প্রাথমিক আবেদন Online -এ নিশ্চায়ন করবে এবং তা আবেদনকারীর মোবাইল নম্বরে SMS -এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে।

উল্লেখ্য যে, প্রাথমিক আবেদন নিশ্চায়ন ব্যতীত কোন প্রার্থীই ভর্তির যোগ্য বলে বিবেচিত হবে না। আবেদন ফি পরিশোধ করে কলেজে আবেদন পত্র জমা দেয়ার পরে প্রার্থীর মোবাইল ফোনে SMS না আসলে বুঝতে হবে যে, তার আবেদন ফরম কলেজ কর্তৃক নিশ্চায়ন করা হয়নি। এক্ষেত্রে প্রার্থীকে সংশ্লিষ্ট কলেজে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে যোগাযোগ করতে হবে নতুবা ডিগ্রিতে ভর্তি হতে পারবে না। তবে মেসেজ ছাড়াও অনলাইনে দেখা যাবে আবেদন সাবমিট ও নিশ্চায়ন করা হয়েছে কিনা। এটার নিয়ম নিম্নে দেখুন :

মোবাইলে মেসেজ না আসলে যা করবেন

প্রাথমিক আবেদন ফরম জমা দেওয়ার পর কলেজ থেকে প্রার্থীর মোবাইলে SMS না আসলে, অনলাইন এর মাধ্যমে জানতে পারবেন যে আপনার আবেদন ফরম কলেজে জমা হয়েছে কি না। তা জানতে এখানে ক্লিক করুন

ফলাফল ও ভর্তি কার্যক্রম : ডিগ্রী (পাস) ১ম বর্ষের ভর্তি কার্যক্রমে মেধাতালিকায় যার পয়েন্ট বেশি থাকবে সেই প্রথমে ভর্তির সুযোগ পাবে। ডিগ্রী (পাস) ১ম বর্ষের ভর্তি কার্যক্রম কয়েকটি ধাপে শেষ হবে। যথা;  ১মমেধাতালিকা,  ২য় মেধাতালিকা, কোটা মেধাতালিকা, ১ম রিলিজ স্লিপ এবং ২য় রিলিজ স্লিপ।

ডিগ্রি কোর্সের বিষয় নির্বাচন

ডিগ্রি ১ম বর্ষে ভর্তি কার্যক্রমে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নির্বাচন। কেননা নির্বাচিত এই ৩টি বিষয়ের যে কোনো একটিতে আপনাকে মাস্টার্স করতে হবে। প্রত্যেক কোর্সের সমান ৩টি আবশ্যিক বিষয় রয়েছে। তবে কোর্সভেদে অতিরিক্ত আরও ০৩ টি বিষয় নির্বাচন করতে হবে।

আবার এ তিনটি বিষয়ের প্রতিটির ২ করে পত্র আপনাকে প্রতি বর্ষে পড়তে হবে। অতিরিক্ত বিষয়গুলো নৈর্বাচনিক বিষয়সমূহ এবং ভর্তিচ্ছু কলেজে চালু আছে এমন অথবা ভর্তি ফরম পূরণ করার সময় অনলাইনে যা দেখাবে তা থেকে বিষয় থেকে নির্বাচন করতে হবে।

ডিগ্রি সকল কোর্সের আবশ্যিক বিষয়

  • ১) স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (১ম বর্ষ)
  • ২) বাংলা জাতীয় ভাষা (২য় বর্ষ)
  • ৩) ইংরেজি (৩য় বর্ষ)

ক) বিএ (পাস) নৈর্বাচনিক বিষয়

নিম্নে প্রদত্ত গুচ্ছসমূহের যে কোন তিনটি গুচ্ছ থেকে একটি করে। মােট ০৩ টি বিষয় নির্বাচন করতে হবে। কোন গুচ্ছ থেকে একাধিক বিষয় নির্বাচন করা যাবে না।

  • ক গুচ্ছ- বাংলা(ঐচ্ছিক)/ইংরেজি(ঐচ্ছিক)/সংস্কৃত/আরবী/পালি/ড্রামা এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ
  • খ গুচ্ছ- ইতিহাস / ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি
  • গ গুচ্ছ-দর্শন/গার্হস্থ্য অর্থনীতি/ ভূগোল ও পরিবেশ/গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান
  • ঘ গুচ্ছ- অর্থনীতি/রাষ্ট্রবিজ্ঞান/সমাজবিজ্ঞান/সমাজকর্ম
  • ঙ গুচ্ছ- ইসলামী শিক্ষা/মনোবিজ্ঞান/গণিত/পরিসংখ্যান

খ) বি এস এস (পাস) নৈর্বাচনিক বিষয়

ক গুচ্ছ থেকে ০২ (দুই) টি এবং খ গুচ্ছ থেকে ০১ (একটি) করে মােট ০৩ (তিনটি) বিষয় নির্বাচন করতে হবে।

  • ক গুচ্ছ- অর্থনীতি/রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবং সমাজবিজ্ঞান/সমাজকর্ম (এই দুটির যেকোন একটি)
  • খ গুচ্ছ- ভূগোল ও পরিবেশ/মনোবিজ্ঞান/ ইতিহাস/ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি/ ইসলামী শিক্ষা/দর্শন/বাংলা(ঐচ্ছিক)/ইংরেজি(ঐচ্ছিক}/সংস্কৃত/ আরবী/পালি/গার্হস্থ্য অর্থনীতি/ড্রামা এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ

গ) বি বি এস (পাস) নৈর্বাচনিক বিষয়

ক গুচ্ছ থেকে ০২ (দুই) টি এবং খ গুচ্ছ থেকে ০১ (এক) টি করে মােট ০৩ (তিনটি) বিষয় নির্বাচন করতে হবে।

  • ক গুচ্ছ- হিসাব বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা
  • খ গুচ্ছ- ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং/মার্কেটিং/ অর্থনীতি/পরিসংখ্যান/কম্পিউটার সায়েন্স

ঘ) বি এস সি (পাস) নৈর্বাচনিক বিষয়

ক গুচ্ছ থেকে ০২ (দুই) টি ও খ গুচ্ছ থেকে যে কোন ০১ (একটি) সহ তিনটি অথবা গ গুচ্ছ থেকে ০২ (দুই) টি ও ঘ গুচ্ছ থেকে যে কোন ০১ (একটি) সহ মোট তিনটি বিষয় নেয়া যাবে।

  • ক গুচ্ছ – পদার্থবিজ্ঞান ও গণিত।
  • খ গুচ্ছ – রসায়ন/ ভূগোল ও পরিবেশ / কম্পিউটার সায়েন্স/ মনোবিজ্ঞান / পরিসংখ্যান / মৃত্তিকা বিজ্ঞান / প্রাণ রসায়ন / গার্হস্থ্য অর্থনীতি / উদ্ভিদ বিজ্ঞান / প্রাণী বিজ্ঞান।
  • গ গুচ্ছ – উদ্ভিদবিজ্ঞান ও প্রাণীবিজ্ঞান অথবা বেসিক হোম ইকোনমিক্স ও এপ্লাইড হোম ইকোনমিক্স
  • ঘ গুচ্ছ – রসায়ন / ভূগোল ও পরিবেশ/ কম্পিউটার সায়েন্স / মনোবিজ্ঞান / পরিসংখ্যান / মৃত্তিকা বিজ্ঞান / প্রাণ রসায়ন / গার্হস্থ্য অর্থনীতি / পদার্থবিজ্ঞান / গণিত/ জেনারেল সায়েন্স ফুড আন্ড নিউট্রিশন।

পরামর্শ

👉 এইচএসসিতে পঠিত ছিলো এমন বিষয়গুলো নেওয়ার চেষ্টা করবেন।
👉 যারা বাংলা/ইংরেজি নিয়ে মাস্টার্স করতে চান, তাদেরকে অবশ্যই বাংলা(ঐচ্ছিক)/ ইংরেজি(ঐচ্ছিক) বিষয় সিলেক্ট লিস্টে রাখতে হবে।

ডিগ্রি চূড়ান্ত ভর্তি পদ্ধতি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্নাতক (পাস) / ডিগ্রী ১ম বর্ষে চূড়ান্ত ভর্তি সাধারণত কয়েকটি ধাপে সম্পন্ন করতে হয় এবং তা শুধু অনলাইনেই সম্পন্ন করতে হয়। তার আগে আপনাকে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি সংগ্রহ করে আবেদন করতে লাগবেন। ডিগ্রি ১ম বর্ষে চূড়ান্ত ভর্তির নিয়ম এখানে গিয়ে নিচের দিকে দেখুন

ডিগ্রি ভর্তি হতে কি কি লাগে

  1. অললাইন থেকে মূল আবেদন ফরম– ২ কপি (একটি কলেজ কপি আর অন্যটি স্টুডেন্ট কপি)
  2. পাসপোর্ট সাইজের ছবি ৪টি এবং পেছনে নাম লিখে দিতে হবে (কলেজভেদে কম বেশি হতে পারে)।
  3. SSC বা সমমান ও HSC বা সমমান পরীক্ষার মূল নম্বরপত্র বা মার্কশিট – ১টি করে ২ টি
  4. SSC ও HSC পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি – ১ কপি করে ২ কপি।
  5. পাঠ বিরতি বা শিক্ষা বিরতি সনদপত্র। (২০২১ সালে এইচএসসি পাশ করছে শুধু তাদের জন্য প্রযোজ্য)
  6. কোটার সনদপত্র যারা মুক্তিযোদ্ধা, পোষ্য কোটায় আবেদন করছেন তাদের জন্য প্রযোজ্য।

ডিগ্রি ভর্তি হতে কত টাকা লাগে

যেকোনো সরকারি কলেজে (হোক তা শহরে বা উপজেলায়) ডিগ্রি ভর্তি হতে সর্বনিম্ন ৩ হাজার এবং সর্বোচ্চ ৫ হাজার টাকা লাগতে পারে।

আর বেসরকারি কলেজে (হোক তা শহরে বা উপজেলায়) ডিগ্রি ভর্তি হতে সর্বনিম্ন ৭ হাজার এবং সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা লাগতে পারে।

ডিগ্রি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২৩

ডিগ্রি ভর্তির সময় বর্ধিত ২০২৩
ডিগ্রি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২৩ (১)

বিগত সালের বিজ্ঞপ্তি

ডিগ্রি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১-২০২২

ডিগ্রি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১-২০২২
ডিগ্রি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১-২০২২
ডিগ্রি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২২

ট্যাগ সমূহ :   ডিগ্রি ভর্তি ২০২২-২০২৩ | জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রি ভর্তি ২০২৩ | জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রী ভর্তি ২০২২-২০২৩ | ডিগ্রী ভর্তি তথ্য ২০২২-২০২৩ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২২-২০২৩ ডিগ্রি ভর্তি শুরু কবে ২০২৩ | ডিগ্রি ভর্তি ২০২২-২০২৩ ডিগ্রি ভর্তি হতে কি কি লাগে  ডিগ্রি ভর্তি হতে কত টাকা লাগে . ডিগ্রি ১ম বর্ষ ভর্তি ২০২২-২০২৩ | degree admission 2022-2023

246 thoughts on “ডিগ্রি ভর্তি ২০২৩ | জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রি ভর্তি ২০২৩”

  1. ওমর ফারুক

    আমি ২০১৭ সালে এসএসসি পাস করি এবং বর্তমান সাল ২০২২ এ এইচএসসি পাস করি এখন কি আমি ডিগিতে আবেদন করতে পারবো ।

  2. আলামিন

    আমি ২০১৫ সালে SSC সালে 2018 HSC। আমি ডিগ্রিতে ভতি হতে পারবো প্লিজ বলেন

  3. বুশরা

    ভাইয়া আমার hsc ২০১৯ সালে আমি কি সরকারি কলেজে এখন ডিগ্রিতে পড়তে পারবো?

      1. ভাইয়া আমার দাখিল ৩.৩১ আর এইচএসসি ৩.৭৫ আমি কি সরকারী কলেজে এ চয়েস দিয়েছি।আমি কি চান্স পাবো সেই কলেজে।

        1. আমি ২০১৪ SSC এবং ২০১৬ HSC. আমি কি ডিগ্রি ভর্তি হতে পারব এবং রেজাল্ট ও ভালো।

          1. Kashpriya Fahmid

            5.36 দিয়ে কি উপজেলা ভিত্তিক সরকারি কলেজ এ বিবিএস থেকে আসবে?

  4. SABBIR MAHMUD CHOWDHURY

    আসসালামু আলাইকুম। আমি অনার্সে পড়তেছি। চাকরির জন্য অনার্স পড়া আমার জন্য পসিবল না। এখন ডিগ্রি পড়তে চাই। এক্ষেত্রে ডিগ্রিতে আবেদনের আগে কি আমার অনার্স বাতিল করতে হবে? নাকি আবেদন করে পরেও বাতিল করতে পারবো? একটু জানাবেন প্লিজ!

    1. আবেদনের পরেও বাতিল করতে পারবেন। ভর্তি হওয়ার আগে অনার্সের ভর্তি বাতিল করতে হবে।

    2. 2017 S.S.C
      2019 H.S.C
      আমি কি ডিগ্রি তে ভর্তি হতে পারবো?

  5. Anamul hussain

    আচ্ছা ভাইয়া আমার একটা প্রশ্ন,, সেটা হচ্ছে আমি ডিগ্রিতে এপ্লাই করার সময় প্রথমে BSS এর জায়গায় BBS দিয়া দিছি,, এবং চয়েস BBS, BA,BSS তিনটাই দিছি,,এখন যদি আমাকে BBS এ চার্স দিয়া দেয়,,এটা আমি কিভাবে পরিবর্তন করবো?

    1. BBS দিয়ে দিলে ভর্তি না হয়ে রিলিজ স্লিপের জন্য অপেক্ষা করবেন

      1. Tania Howladar

        আমি ২০১৩ সালে এস,এস, সি পাস করেছি। ২০১৭ সালে এইচ,এস,সি পাস করেছি। এখন ডিগ্রি তে ভর্তি হওয়া যাবে কি? একটু জানাবেন প্লিজ। চাকুরি করার কারনে অনাস করা কস্ট হয়ে যাচ্ছে

  6. ডিগ্রীতে ১ম আবেদনে ভর্তি না হলে দ্বিতীয় বার আবেদন করার কি সুযোগ আছে অথ্যাৎ দ্বিতীয় বার কি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি দেয়

    1. ২য় বার না। বরং রিলিজ স্লিপে আবেদন করতে পারবে। তবে এ জন্য ১ম পর্যায়ে আবেদন করতে হবে। নতুবা রিলিজ স্লিপে আবেদন করার সুযোগ পাবে না।

      1. Ms.Jannati aktar Monika

        ভাইয়া আমি এপলাই করছিলাম কিন্তু এখনো তো রেজাল্ট দিচছে না কবে রেজাল্ট দিবে আর আমি চান্স পায় তবে যদি আমি আবার এপলাই করি তাইলে কি ভর্তি হতে পারবো আর ডিগ্রি ভর্তি র জন্য কয়বার সুযোগ দিবে আর ডিগ্রি ভর্তি কি রেজাল্ট এর আগে শুরু হয়ে গিছে

      2. Tania Howladar

        আর আজ আমি একটা কলেজে ডিগ্রি তে ১ম বষে ভর্তি হয়ে আসলাম। BSS program এ

  7. আমি ২০১৪ তে দাখিল দিয়েছি, আর ২০২১ এ প্রাইভেট এর মাধ্যমে এইচএসসি দিয়েছি, আমি ডিগ্রি করতে চাই , কিভাবে করবো ? রেগুলার ডিগ্রি তে ভর্তি তো হওয়া যাবে না , আর প্রাইভেট ডিগ্রি এর ক্ষেত্রে তো অনেক গ্যাপ চায়, আশা ভালো একটা সাজেসন দিবেন , ধন্যবাদ

      1. উন্মুক্ত তে অনেক সময় লাগে। এর জন্য উন্মুক্ত তে ইচ্ছা হচ্ছে না ।

  8. আমি ডিগ্রিতে এপ্লাই করতে পারি নাই। আমি এখন কি করতে পারি?

  9. নাইম

    আমি যে কলেজ চয়েজ দিছি তা পরিবর্তন করতে চাই রেজাল্ট দিলে কি পরিবর্তন করতে পারব?

    1. পরিবর্তন করতে হলে রিলিজ স্লিপের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

  10. আসাদুজ্জামান রাকিব

    আসসালামুআলাইকুম। ভাইয়া, আমার মন্তব্য টা পরে দয়াকরে করে বলুন আমাকে এখন কিকরতে হবে 🙏 ভাইয়া আমি অনার্স এ পরি। কিছু দিন আগে সমস্যার কারনে অনার্স এ পারবো নাহ বলে সিদ্ধান্ত নেই এবং এইবার ডিগ্রি তে আবার আবেদন করি। এখন আমার ডিগ্রি তে ১ম মেরিটে সাবজেক্ট আসছে, এবং আমি যেই কম্পিউটার এর দোকানে আবেদন করে ছিলাম সে আমাকে না বলেই, অনলাইন ভর্তি ফর্ম পুরন করে সাবমিট দিয়েদিছে। কিন্তু আমি এখন ডিগ্রি তে ভর্তি হবো নাহ সিদ্ধান্ত নেই। অনার্স এই পরবো। এক্ষেত্রে আমার কি অনার্স এর রেজিষ্ট্রেশন বাতিল হবে?

    1. ওয়ালাইকুমুস সালাম। ঐ দোকানদারকে গিয়ে বলুন ডিগ্রির ভর্তি ক্যানসেল করে দিতে। আর হ্যা টাকা না দিলে কোনো সমস্যা হবে না। তাও ডিগ্রির ভর্তি ক্যানসেল করে দিলে ভালো।

  11. জহিরুল হক

    যারা ডিগ্রী ভর্তির জন্য ২য় ধাপেও নাম আসে নি বা উত্তিন্য হয় নি তাদের কি হবে।তারা কি ভর্তি হতে পারবে। পারলে কেমনে বা কোথায় পারবে

  12. Farhana Akter Jumu

    আমি ২০১৬ তে এসএসসি দিছি আর ২০২৩ এ এইচএসসি পাস করছি এখন কি আমি ডিগ্রিতে ভর্তি হতে পারবো?

    1. জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পারবে না। তবে উন্মুক্ততে পারবে।

    2. Hasibul Hossen

      আমি ২০১৯ এসএসসি দিছি আর ২০২১ এইচএসসি মাঝ খানে এক বছর গ্যাপ। এখন কি আমি ডিগ্রি তে ভর্তি হতে পারবো ২০২৩ এ?

        1. Hasibul Hossen

          আমার এসএসসি পয়েন্ট ৩.০০ আর এইচএসসি ৩.৬৭ টোটাল ৬.৬৮ এটা দিয়ে কি সরকারি কলেজ ভর্তি হতে পারবো আমি একটু জানাবেন আমাকে ভাই খুব টেনশনে আছি আমি

          1. উপজেলা কেন্দ্রিক কোনো কলেজে আবেদন করে দেখতে পার। ৬০% সম্ভাবনা।

  13. আসসালামু আলাইকুম ভাইয়া। আমি 2020 সালে এস এস সি পরিক্ষায় 1.78 পেয়ে উত্তির্ন হই এবং 2022 সালে এইচএইচসি তে 3.11 পাই।এখন কি আমি ডিগ্রিতে আবেদন করা বা ভর্তি হতে পারবো?

  14. ভাই আমার বোন ইন্টারে কর্মাসে পড়ছে ডিগ্রি তে কি সে বিএ কোর্সে ভর্তি হতে পারবে

  15. সার্ভার সমস্যা করে ভাইয়া, সমাধান কি?

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!